ড. কামালকে ফোনে তারেক বললেন, ‘আপনি আমার বাবার মতো’

তারেক জিয়ার সঙ্গে প্রায় কুড়ি মিনিট কথা বললেন ড. কামাল হোসেন। গতরাতে ড. কামাল হোসেনের একজন সহযোগী

আইনজীবীর ফোনে ফোন করেন লন্ডনে পলাতক, ১৭ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত তারেক জিয়া।

একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, ড. কামাল হোসেনের জামাতা ডেভিড বার্গম্যান এই টেলি আলাপের উদ্যোক্তা। বার্গম্যান এখন লন্ডনে অবস্থান করছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭ টা ৩০ মিনিট থেকে ৭ টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত ড. কামাল-তারেক টেলিফোনে কথা হয়। তারেক আপিল বিভাগে তাঁর মা বেগম খালেদা জিয়ার জামিনের আবেদনের শুনানিতে অংশ নেওয়ার অনুরোধ করেন। ড. কামাল প্রথমে এ ব্যাপারে তাঁর অনাগ্রহের কথা জানালে তারেক জিয়া বারবার তাঁকে অনুরোধ করেন।

এক পর্যায়ে তারেক জানতে চান, ‘ন্যায় বিচার পাবার কি কোনো অধিকার তাঁর মায়ের নেই।’

তারেক ড. কামালকে প্রশ্ন করেন, ‘আমার মা কি অবিচারের শিকার হচ্ছে না?‘

ড. কামাল অবশ্য স্বীকার করেন, বেগম জিয়ার প্রতি অবিচার করা হচ্ছে।

এক পর্যায়ে তারেক ড. কামালকে বলেন, ‘আপনি আমার বাবার মতো। এই মামলায় আপনি থাকুন। এটা একজন সন্তানের আকুতি।’

এরপর ড. কামাল বলেন, ‘বেশ আমি বিষয়টি একটু ভেবে দেখি।’ কামাল-তারেক পারস্পরিক কুশল বিনিময় ছাড়াও, দুজনের স্বাস্থ্যের খোঁজ খবর নেন।

আরো পড়ুন…

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নেতা হবার পাঁচ শর্ত প্রধানমন্ত্রীর
পাঁচটি যোগ্যতা পূরণ করলেই কেবল এবার ছাত্রলীগের নেতা হওয়া যাবে। শুধু বয়স এবং বিগত কমিটিতে কি অবস্থায় ছিলেন, তা বিবেচনায় নেওয়া হবে না কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতরাতে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে ৫ দফা নির্দেশনা দিয়েছেন।

ছাত্রলীগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতার কাছে আওয়ামী লীগ সভাপতি এই পাঁচ দফা নির্দেশনা দেন। এ সময় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক এবং সংগঠনের সম্পাদক এনামুল হক শামীম উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের নেতা নির্বাচনের জন্য যে ৫ টি শর্ত দিয়েছেন এগুলো হলো:

এক. ছাত্র রাজনীতির শুরু থেকেই ছাত্রলীগ করতে হবে। আগে অন্য ছাত্র-সংগঠন করতো এখন ছাত্রলীগ করে, এমন কাউকে শীর্ষ নেতৃত্বের জন্য বিবেচনা করা হবে না।

দুই. পারিবারিক পরিচয় নিশ্চিত হতে হবে। ছাত্রলীগ নেতার বাবা, মা, ভাই, বোন কি ধরনের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তা জানতে হবে। পরিবারের কেউ বিএনপি-জামাত বা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী কোনো সংগঠনের সঙ্গে জড়িত থাকলে, ঐ ছাত্রলীগ কর্মী নেতৃত্বের জন্য বিবেচিত হবে না।

তিন. নেতৃত্বের জন্য বিবেচিত হতে হলে ছাত্রলীগ কর্মীকে নিষ্কলুষ থাকতে হবে। তাঁর বিরুদ্ধে কোনো চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসের কোনো মামলা কিংবা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকা যাবে না।

চার. ছাত্রলীগ নেতা হতে চাইলে তাকে শুধুই ছাত্র হতে হবে। ছাত্র আবার ব্যবসা করে এমন ছাত্রলীগ কর্মী নেতা নির্বাচনে অযোগ্য বিবেচিত হবে। মেধাবী ছাত্ররা অগ্রাধিকার পাবে

পাঁচ. কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত ছিল এমন ছাত্রলীগ কর্মী নেতৃত্বের জন্য বিবেচিত হবে না।

এই পাঁচশর্ত পূরণকারীদের মধ্যে থেকেই আগামী ছাত্রলীগ নেতা বিবেচিত হবেন।

‘জঙ্গিবাদ দমনে বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জঙ্গিবাদ একটি আন্তর্জাতিক সমস্যায় পরিণত হয়েছে। আর এ জঙ্গিবাদ দমনে র‌্যাব ও আইন-শৃঙ্খলা-বাহিনীর সহযোগিতায় বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিরা রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাবের) প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ হবে একটি শান্তিপূর্ণ দেশ। কোনও মতেই কোনও ধরনের জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দিব না। সেজন্য গোয়েন্দা সংস্থা, র‌্যাব, সশস্ত্রবাহিনী ও বিজিবি সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। জঙ্গিবাদ দমনে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

এসময় তিনি জঙ্গিবাদ দমনে র‌্যাবের বিভিন্ন অভিযান ও কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।

প্রধানমন্ত্রী অারও বলেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম। ইসলামে কোনও ধরণের সন্ত্রাসবাদের স্থান নেই। যারা সন্ত্রাসী, যারা জঙ্গিবাদে বিশ্বাসী তাদের কোনও ধর্ম নেই, তাদের কোনও দেশ নেই, তাদের কোনও জাতি নেই। তারা সন্ত্রাসী, তারা দেশের শত্রু, জাতির শত্রু।

pagenews