কেন ভেঙেছিল এই বলিউড তারকাদের সংসার?

বলিউড তারকাদের সম্পর্কের ভাঙন বেশ স্বাভাবিক ব্যাপার। হর হামেশা সম্পর্কের ভাঙ্গা গড়ায় মেতে উঠছেন অনেকে। কখনো পেশাগত কারণে, আবার কখনো পরকীয়ায় জড়িয়ে বলিউডের অনেক জনপ্রিয় তারকা জুটি সম্পর্কের ইতি টেনেছেন। আবার পারস্পরিক শ্রদ্ধা বোধের অভাবেও অনেক তারকা সম্পর্ক ভেঙ্গেছেন। বলিউডের কয়েকজন তারকার সম্পর্ক ভাঙার কারণ নিয়েই আজকের আয়োজন:

• সাইফ আলী খান-অমৃতা সিং

প্রেমে পড়েই ১২ বছরের বড় অমৃতাকে বিয়ে করেন সাইফ। কিন্তু, তাঁদের সম্পর্কের বাঁধন তেমন মজবুত ছিল না। জানা যায় সাইফের উপর অতিরিক্ত কর্তৃত্ব স্থাপন করতেন অমৃতা। পাশাপাশি এক বিদেশি মডেলের সঙ্গে সাইফের সম্পর্ক ইত্যাদি নানা কারণে সাইফ-অমৃতার ১৩ বছরের সংসার ভেঙ্গে যায়।

• আমির খান-রীনা দত্ত

১৯৮৬ সালে ভালোবেসেই রীনা দত্তকে বিয়ে করেন আমির খান। কিন্তু, ২০০২ সালে বিচ্ছেদ হয়ে যায় তাঁদের। জানা যায়, আমিরের সঙ্গে নাকি মতের মিল হচ্ছিল না রীনার। এছাড়া বর্তমান স্ত্রী কিরণ রাওয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতাও সম্পর্ক ভাঙনের অন্যতম কারণ বলে মনে করা হয়।

• ঋত্বিক রোশন-সুজানা খান

বলিউডে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছিল ঋত্বিক-সুজানার বিবাহ বিচ্ছেদ। দীর্ঘ দিনের টানাপোড়েন কাটিয়ে ২০১৪ সালে ১৪ বছরের দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানেন তাঁরা। ঋত্বিকের নানা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া, বিশেষ করে কঙ্গনা রনৌতের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতাও নাকি সম্পর্কে চিড় ধরার অন্যতম কারণ বলে মনে করা হয়। যদিও এই বিষয়ে দু’জনের একজনও মুখ খোলেননি।

• ফারহান আখতার-অধুনা ভবানী

এক সময় বলিউডে রোমান্টিক দম্পতি হিসেবেই পরিচিত ছিলেন ফারহান-অধুনা। অধুনা পেশায় একজন হেয়ার স্টাইলিস্ট। ২০১৬ সালে এই জুটি তাঁদের ১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানেন। গণমাধ্যমকে স্পষ্ট করে কিছু না বললেও শোনা গিয়েছে দু’জনের মানসিকতার বিস্তর ফারাকই নাকি বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ।

• অনুরাগ ক্যাশপ-কাল্কি কোয়েচিন

‘দেব ডি’-র শুটিংয়ের সময় থেকেই প্রেমে পড়েন কাল্কি-অনুরাগ। ২০১১ সালে চার হাত এক হয়। তবে, কাগজে কলমে বিচ্ছেদের আগেই নাকি দু’জনে আলাদা থাকা শুরু করেছিলেন। গণমাধ্যমকে কাল্কি বলেছিলেন, তাঁদের সম্পর্কের কোনো কিছুই নাকি আর ঠিক নেই। জানা যায়, অনুরাগের পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়াই নাকি বিচ্ছেদের মূল কারণ।

• আরবাজ খান-মালাইকা আরোরা

চার বছর চুটিয়ে প্রেম করার পর বিয়ে করেছিলেন আরবাজ-মালাইকা। এরপর ১৮ বছরের দাম্পত্য জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটান ২০১৬ সালে। পরস্পরের মতামত নিয়েই নাকি বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দু’জন। তবে ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, অভিনেতা অর্জুন কাপুরের সঙ্গে মালাইকার পরকীয়া সম্পর্কই নাকি আরবাজ-মালাইকার বিচ্ছেদের মূল কারণ। -বাংলা ইনসাইডার