আর্জেন্টিনার দু:খ হিগুয়াইন

জুভেন্টাসের হিগুয়াইন ও আর্জেন্টিনার হিগুয়াইন মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। জুভেন্টাসে এখনও তাঁকে লিগের সেরা স্ট্রাইকার মানা হলেও নিজের দেশের জার্সি গায়ে তিনি একদমই মানিয়ে নিয়ে পারেন না। আজকে হাইতির বিপক্ষে আর্জেন্টিনা ৪-০ গোলের জয় পেলেও মাঠে একদমই খুঁজে পাওয়া যায়নি হিগুয়াইনকে।হাইতির বিপক্ষে আর্জেন্টিনা সহজ জয় পেলেও তেমন কোন বড় ধরনের বাধার সম্মুখীন হতে হয়নি। আর্জেন্টিনার বড় যেই সমস্যা সেটা হচ্ছে মিড ও ডিফেন্স। সেটা আসলে এই ম্যাচে ঝালিয়ে নেয়া সম্ভব হয়নি।

কেননা পুরো ম্যাচে হাইতি বড় ধরনের কোন সুযোগ অথবা আর্জেন্টিনার ডিফেন্সে বড় ধরনের হুমকি তৈরি করতে পারেনি।আজকের ম্যাচে আর্জেন্টিনার হিগুয়াইনকে খুবই আক্রমণাত্মক লেগেছিল। প্রথম গোলের সুযোগ নষ্ট করার পর বার পোস্টে সজোরে লাথি মেরে নিজের উপর রাগটা ঝারেন। রাগ ঝেড়ে ফেলে হয়তো তিনি চেষ্টা করবেন আর্জেন্টিনার জার্সি জড়িয়ে দলের জন্য গোল এনে দিতে। কিন্তু বিধিরাম। একে একে এরপর আরও দুইটি সহজ সুযোগ নষ্ট করেন তিনি।

প্রতিবার গোলের সহজ সুযোগ নষ্ট করার পরেই তাঁর চোখে মুখে হতাশা ফুটে ওঠে। শেষ পর্যন্ত তাঁর পরিবর্তে মাঠে নামানো হয় ম্যানচেস্টার সিটির আরেক স্ট্রাইকার আগুয়েরাকে। সাইড লাইনে চলে গিয়ে একদম চুপসে বসে ছিলেন। তাঁকে দেখে বোঝাই যাচ্ছিলো তিনি নিজেকে নিয়ে হতাশ। সামনে বিশ্বকাপ। মনে গোল করার ক্ষুধা। কিন্তু হচ্ছে না।এদিকে হিগুয়াইন সহজ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে জ্বলে ওঠে বিশ্বকাপের আগে নিজের আত্মবিশ্বাসকে আরও বাড়িয়ে নিবে এমনটাই আসা করেছিলেন ভক্তরা।

কিন্তু ১০৮ নম্বরে থাকা হাইতির বিপক্ষে একের পর এক ভুল করতেই থাকেন হিগুয়াইন। সহজ তিনটি গোলের সুযোগ নষ্ট করেন তিনি একাই। ম্যাচ শেষে এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ‘বিশ্বকাপের জন্য সব গোল বাঁচিয়ে রেখেছি’।উক্তিটি আত্মবিশ্বাসী হওয়ার অস্ত্র মনে হলেও আসলে হিগুয়াইন নিজেও হতাশ তাঁকে নিয়ে। আর্জেন্টিনা দল থেকে শুরু করে আর্জেন্টিনার কোচ সাম্পাওলি এখনও আস্থা রাখেন হিগুয়াইনের উপর। কিন্তু সেই আস্থার প্রতিদান তিনি দিতে পারছেন না। আর্জেন্টিনার হয়ে শেষ ৭টি ম্যাচে গোলের দেখা পাননি হিগুয়াইন।

দলের প্রধান স্ট্রাইকার যদি গোল না পান তবে সেই দলের জয় পাওয়াটা সত্যি কষ্টকর হয়ে যায়। বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে মেসি অন্যতম। কিন্তু মেসি হয়তো দুই তিনটা ম্যাচে একাই জিতিয়ে দিতে পারেন। কিন্তু সেটা দিয়ে আর যাই হোক বিশ্বকাপ জয় করা সম্ভব নয়।আর্জেন্টিনা ভক্তরা এখনও ভুলে যাননি হিগুয়াইনের তিনটি ফাইনালের সহজ মিস গুলো। সহজ মিসগুলোর একটিও যদি কাজে লাগাতে পারতেন তাহলে এতদিনে আর্জেন্টিনার ঘরে একটি হলেও আন্তর্জাতিক একটি শিরোপা থাকতো। তাই বিশ্বকাপের আগে আর্জেন্টিনার হিগুয়াইন আবারও জ্বলে উঠবে জুভেন্টাসের হিগুয়াইন হয়ে এটাই এখন আর্জেন্টিনা প্রেমীদের কাছে কাম্য। যদি বিশ্বকাপের মতন আসরে গ্রপ পর্বেই জ্বলে উঠতে না পারেন তাহলে নিজ থেকেই দলের স্বার্থে নিজের নাম প্রত্যাহার করে ফেলা উচিত।-বাংলা ইনসাইডার