বলিউডের এই নায়িকাদের আসল নাম কী?

বলিউডে শুধু রূপের গ্ল্যামার ধরে রাখাই শুধু বড় চ্যালেঞ্জ নয়, বরং সেই গ্ল্যামারকে সঠিক সমর্থন দিতে প্রয়োজন সঠিক নামের। নাম যদি মনে রাখার মতো না হয়,তাহলে সেই সেলেবের বলিউডে টিকে থাকতে মুশকিল হয়। এমন ধারণা অনেকেরই।

আর সেই ধারণা থেকেই অনেক বলিউড অভিনেত্রী পাল্টে ফেলেছেন নিজের নাম। কোন কোন বলিউড অভিনেত্রী নিজের নাম পাল্টেছেন , দেখে নেওয়া যাক। তাদের আসল নামই বা কী জেনে নেওয়া যাক।

মল্লিকা শেয়াওয়াত: হরিয়ানার মেয়ে মল্লিকা শেরাওয়াতের আসল নাম ছিল রিমা লাম্বা। বলিউডে অবশ্য তিনি মল্লিকা শেরাওয়াত নাম নিয়েই কেরিয়ার শুরু করেন। উল্লেখ্য, তার মায়ের পদবী শেয়াওয়াতকেই গ্রহণ করেছেন মল্লিকা।

শিল্পা শেট্টি: দক্ষিণী অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টির আসল নাম ছিল অশ্বিনী শেট্টি। স্কুলে পড়তেই তার নাম পরিবর্তিত হয় সংখ্যাত্ত্বের বিচারে। ১৯৯৩ সালে তার বলিউডে অভিষেক হয় বাজিগর ছবির মাধ্যমে। পরবর্তীকালে ২০০৮ সালে জানা যায় তার নাম পরিবর্তনের খবরটি।

শ্রীদেবী: ভারতের প্রথম মহিলা সুপারস্টার শ্রীদেবী। ছোটবেলা থেকেই তিনি লাইট-ক্যামেরা-অ্যকশনের মুখোমুখি হয়ে চলেছেন। জন্মসূত্রে তার নাম ছিল, শ্রী আম্মা ইয়াঙ্গার আয়াপ্পান। পরবর্তীকালে কন্নড়, তলুগু, তামিল ছবিতে নায়িকা হিসাবে অভিনয়ের দরুন নাম পরিবর্তন করেন তিনি। বলিউডে তিনি শ্রীদেবী নাম নিয়েই প্রবেশ করেছেন।

ক্যাটরিনা কাইফ: বলিউড ডিভা ক্যাটরিনা কাইফের আসল নাম ছিল কেট টরকোট। তবে বলিউডের আগে তিনি দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার সময় থেকেই নিজের নাম পরিবক্তন করে ফেলেন। নতুন নাম হয় ক্যাটরিনা কাইফ।

প্রীতি জিন্তা: হিমাচলের মেয়ে প্রীতিকে প্রথমের দিকে ইন্ডাস্ট্রি চিনতো ‘লিরিল গার্ল’ হিসাবে। একাধিক বিজ্ঞাপনে অভিনয়ের পর বলিউডে ফিল্মে পা রাখা প্রীতির আসল নাম ছিল প্রীতম জিন্তা সিং।

মহিমা চোধুরী: মহিমা চৌধুরীর আসল নাম ছিল রিতু চৌধুরী। তবে সুভাষ ঘাইয়ের ছবি ‘পরদেশ’-এ সুযোগ পাওয়ার পরই নাম পরিবর্তন করতে হয় মহিমাকে। কারণ সুভাষ ঘাইয়ের ছবির সফল নায়িকাদের নাম ‘ম’ দিয়ে শুরু হয়, যেমন- মাধুরী, মনীষা। তাই রিতু থেকে নাম পরিবর্তিত হয়ে যায় মহিমাতে। সূত্র: অন ইন্ডিয়া