ব্রেকিং নিউজ ঃ প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বিরদ্ধে মামলা

আসন্ন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনে বিজয়ী হতে ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে তফসিল বর্ণিত ভোট কেন্দ্রের অধিক কেন্দ্র স্থাপন করার হুমকি দেয়ার অভিযোগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদাসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া মামলায় বরিশাল জেলা প্রশাসকসহ ৫ জনকে মোকাবেলা বিবাদী করা হয়েছে।মঙ্গলবার (২৯ মে) বরিশাল সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে একই ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এসএম আনিসুর রহমানসহ ৫ জন যৌথভাবে মামলাটি দায়ের করেন।

এই মামলায় অন্যান্য অভিযুক্তরা হলেন সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার, সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার, আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার ও বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের সচিব। এছাড়া মোকাবেলা বিবাদীরা হলেন জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের স্থানীয় সরকারের পরিচালক ও স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের (সিটি কর্পোরেশন শাখা) সচিব।

মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী আজাদ রহমান জানান, বরিশাল ধান গবেষণা রোডের বাসিন্দা জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক কাউন্সিলর এসএম আনিছুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের ২৪ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি মাহাবুব আলম ওরফে বদিউল আলম ও সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হুদা, বিসিসির সাবেক কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর মোল্লা আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এবং মহিলা আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড সভানেত্রী শাহানাজ পারভীন ডালিম ২২, ২৩ ও ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদপ্রার্থী। স্থানীয়ভাবে তাদের ব্যাপক জনপ্রিয়তা থাকায় আসন্ন নির্বাচনের কাউন্সিলর পদে জয়লাভে তারা আশাবাদী।

বিসিসির ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমানে ৪টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। এলাকার জনসংখ্যা বিবেচনায় জনস্বার্থে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানোর লক্ষ্যে গত ৩০ জানুয়ারি জেলা নির্বাচন অফিসার স্থানীয় পর্যায়ের সকলকে নিয়ে নিজ কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় রূপাতলী হাউজিং এলাকায় শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত মাধমিক বিদ্যালয় ও সাগরদী পিটিআই ইনস্টিটিউট নতুন ভোটকেন্দ্র হিসেবে ঘোষণা করলে তা সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।

২৪ নম্বর ওয়ার্ডে বর্তমানে মোট ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ৬টি। কিন্তু বর্তমান কাউন্সিলর ফিরোজ আহম্মেদ জনসমর্থনহীন থাকায় ভোট কারচুপিসহ বেআইনি ও অবৈধ কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে নির্বাচনে জয়লাভ করার অসৎ উদ্দেশে তার মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত আবেদুন্নেছা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘোষিত ভোটকেন্দ্রের বাইরে নতুনভাবে একটি ভোটকেন্দ্র স্থাপনের পায়তারায় লিপ্ত হন। যেহেতু বিদ্যালয়টি ২৪ নম্বর ওয়াডের্র নদীর শেষ প্রান্তে স্থাপিত এবং ওপারে চরকাউয়া ইউপি ও নলছিটি এলাকা থাকায় সেখান থেকে সন্ত্রাসী বাহিনী নদী পথে এসে ভোট ডাকাতি করার আশংকা রয়েছে।

এছাড়া নির্ধারিত ৬টি ভোট কেন্দ্রের বাইরে নতুন কোন ভোটকেন্দ্র স্থাপনে স্থানীয় জনসাধারণের নূন্যতম সম্মতি না থাকায় এসএস আনিছুর রহমানসহ অন্যান্যরা প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ সকলকে জনমত উপেক্ষা করে নতুন ভোটকেন্দ্র স্থাপন এবং নির্বাচন কার্যক্রম পরিচালনা না করার অনুরোধ জানান। কিন্ত গত ২৭ মে কর্মকর্তারা আবেদুন্নেছা বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটকেন্দ্র স্থাপনের হুমকি দেন।

এ ঘটনায় মোকাবেলা বিবাদিদের সামনে বিচারকাজ সম্পন্ন হওয়া আবশ্যক বিধায় মঙ্গলবার মামলাটি দায়ের করলে বিচারক ওই নির্দেশ দেন।

মামলার অন্যান্য বাদীরা হলেন- মাহাবুব আলম ওরফে বদিউল আলম, নাজমুল হুদা, জাহাঙ্গীর মোল্লা ও শাহানাজ পারভীন ডালিম।

amardesh247.com