আফগান সিরিজ খেলতে ভারতের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার সময় যে কারনে মিডিয়াকে এড়িয়ে গেলেন ক্রিকেটাররা

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে ভারত গেল বাংলাদেশ দল।আফগানিস্তানের বিপক্ষে সবগুলো ম্যাচই হবে তাদের নিরপেক্ষ ভেন্যু ভারতের দেরাদুনে। আজ (২৯ মে) সকাল ১০ টায় সাকিব-মুস্তাফিজকে ছাড়াই ভারতের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়লো টাইগাররা।বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে যাওয়া তামিম ইকবাল ইংল্যান্ড থেকে সরাসরি দেরাদুনে দলের সাথে যোগ দেবেন।

ভারত ছাড়ার আগের রাতে হঠাতই মুস্তাফিজের ইনজুরির খবর আসে। এতে কিছুটা হলেও চাপে বাংলাদেশ দল। সে জন্যই কিনা বিমানবন্দরে সংবাদমাধ্যমকে এড়িয়ে গেলেন দলের সবাই। অধিনায়ক সাকিব আল হাসান দলের সাথে যোগ দিতে ভারতে যাবেন ৩১ মে। মুস্তাফিজের পরিবর্তে দলে আসতে পারেন সাইফুদ্দিন অথবা আবুল হাসান রাজু।দেরাদুনের রাজীব গান্ধী ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী ৩, ৫ ও ৭ জুন হবে টি-টোয়োন্টি ম্যাচ তিনটি। তিনটি ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ৮:৩০ মিনিটে। সবগুলো ম্যাচই সরাসরি সম্প্রচার করবে জিটিভি ও বিটিভি।

ওয়ানডেতে ৯৯ রানে অপরাজিত থাকা ১৩ ব্যাটসম্যান-একজন ব্যাটসম্যানের কাঙ্খিত স্বপ্ন সেঞ্চুরী করা। ফিফটি করার পরই ইনিংসটাকে সেঞ্চুরীতে পরিণত করতে চান সবাই, ধীরে ধীরে ৯০ রান পূর্ণ করার পরই কিভাবে শতরান পূর্ণ করা যায় সেদিকে মনযোগী হন, কেউ বাউন্ডারী মেরে শতরান পূর্ণ করেন কিংবা কেউ কেউ এক, দুই রান নিয়ে এগিয়ে শতরান পূর্ণ করেন। কেউ সফল হন কিংবা কেউ ব্যর্থ অর্থাৎ নব্বই রানের পর সেঞ্চুরী পূর্ণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন এমন ক্রিকেটার ও ইনিংসের অভাব নেই ওয়ানডে ক্রিকেটে।

কিন্তু ভালো খেলেও যদি পর্যাপ্ত বল না পাওয়ার কারনে কিংবা টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পর্যাপ্ত রান না থাকার কারনে ৯৯ রানে অপরাজিত থাকতে হয়, তা দুঃখজনক, হতাশাজনক। ওয়ানডেকে ক্রিকেটে এমন ঘটনাও ঘটেছে ১৩বার।ওয়ানডে ক্রিকেটে ৯৯ রানে অপরাজিত থেকেছেন এমন ১৩ জন ব্যাটসম্যান-

১।নিউজিল্যান্ডের বিএ এডগার ভারতের সাথে ৯৯ রানে অপরাজিত থাকেন।২। অস্ট্রেলিয়া ডিন জোন্স শ্রীলংকার সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৩। উইন্ডিজের রিচার্ডসন পাকিস্তানের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৪। জিম্বাবুয়ের এন্ডি ফাওয়ার অস্ট্রেলিয়ার সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৫। জিম্বাবুয়ের আলিস্টার ক্যাম্পবল নিউজিল্যান্ডের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৬।

উইন্ডিজের রামনেস সারওয়ান ভারতের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৭। অস্ট্রেলিয়ার ব্র্যাড হজ নিউজিল্যান্ডের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৮। পাকিস্তানের মোহাম্মদ ইউসুফ ভারতের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।৯। অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল কার্ক ইংল্যান্ডের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।১০।ভারতের বিরেন্দ্র সেবাগ শ্রীলংকার সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

১১।জিম্বাবুয়ের ম্যালকম ওয়ালার নিউজিল্যান্ডের সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।১২। স্কটল্যান্ডের ম্যাকলেওড কানাডার সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।১৩। আরব আমিরাতের স্বপ্নিল পাতিল কানাডার সাথে ৯৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।প্রথম ও দ্বিতীয় ইনিংস মিলিয়েই ১৩ বার এমন ঘটনা ঘটেছে। প্রায় ব্যাটসম্যানই পর্যাপ্ত বল খেলেছেন অর্থাৎ ১২০ বলের অধিক বল মোকাবেলা করেও সেঞ্চুরী পূর্ণ করতে পারেননি, ৯৯ রানেই অপরাজিত থেকেছেন। আর কেউ কেউ দ্রুত গতিতে রান তুলে ৯৯ রানে অপরাজিত থেকেছেন।