স্বামীর পরকীয়া, তাই মৃত্যুর আগেও কল ধরেনি তাজিনের

: তাজিন আহমেদের হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়া। হসপিটালে নেয়া থেকে শুরু করে কোথাও ছিল না তাঁর স্বামী। তাজিন আহমেদের মৃত্যুর আগে শেষ কয়েকটা দিন যাকে সবচেয়ে কাছে পেয়েছেন, তিনি মেকাপ আর্টিস্ট মিহির মহন। তিনিই তাকে শেষমহুর্তে হসপিটালে নিয়ে গেছেন। তাজিন আহমেদের দেখভাল তিনি করতেন।

তিনি অভিনেত্রী হুমায়রা হিমুর ফেসবুকে থেকে এক ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। সেখানে তিনি জানান, অনেকেই বলছেন দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গেও তাজিনের ডিভোর্স হয়েছে। কিন্তু তাজিনের সঙ্গে তার দ্বিতীয় স্বামীর ডিভোর্স হয়নি। কিন্তু সম্পর্ক ভালো ছিল না। মৃত্যুর দিন সকালেও আপু স্বামীকে বারবার ফোন দিতে বলেছিলেন। কিন্তু বারবার ফোন করেও তাকে পাইনি। আপুর নাম্বার সে আগেই ব্লক কেরে রেখেছিল।

তিনি আরও বলেন, আপু আমাকে খুব ভালোবাসতেন। আমার জন্য তিনি অনেক কষ্ট করেছেন। ছন্দ নামের এক গায়িকার সঙ্গে দুলাভাইয়ের (তাজিনের স্বামী রুমি রহমান) পরকিয়া ছিল। এমনকি ওই মেয়ে যখন দুলাভাইয়ের নামে মামলা করে। আপু তখন অনেক দৌড়াদৌড়ি করছে তাকে নিয়ে। দুলাভাইয়েরে এমন কাজের পরও আপুনি তাকে অনেক ভালোবাতেন। তার জন্যই তাজিন আপু আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন।’

মিহির জানান, তাজিনের শেষ সময়টায় অভিনেতা শহীদুজ্জামান সেলিম ও রোজী সিদ্দিকী দম্পত্তিও পাশে ছিলেন। তাঁরা সবসময় সর্বাত্নক সাহায্য করার চেষ্টা করতেন।

হিমুও ছিল সে লাইভ ভিডিওতে। তিনি বলেন, ‘অধিকাংশ পত্রিকায় তাজিন আপুকে নিয়ে মিথ্যে খবর প্রকাশিত হচ্ছে। এখন মিডিয়ার অনেক মানুষ তাজিন আপুর বন্ধু দাবি করে নানা রকম কথা বলছেন। কিন্তু তিনি জীবিত থাকা অবস্থায় কেউ তার খবর রাখেনি। সে সময় এই মিহিরই পাশে ছিলেন। অথচ কোথাও কেউ তার নামটিও বলছেন না।’

তিনি আরও জানান, মিহির মহন শোবিজের অনেক সেলিব্রেটি তারকাদেরই মেকাপ করেছেন। তাজিন তাকে নিজের ছেলের মতো করেই দেখতেন।
এমটিনিউজ২৪