‘লুটেরা ছাড়া পায় কিন্তু খালেদা জিয়া জেলে’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, যারা মুক্তিযুদ্ধ করতে পারেননি, তাদের এবার দেশ রক্ষার যুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার আহ্বান জানান। ৩০ লাখ শহিদের রক্তের বিনিময়ে এই দেশ স্বাধীন হয়েছে, কিন্তু আজ দেশকে স্বাধীন রাখার জন্য আরও ৬০ লাখ মানুষকে রক্ত দিতে হবে। এই মানসিক প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানান দলের নেতাকর্মীদের।

তিনি শনিবার বিকালে মানিকগঞ্জ খন্দকার নুরুল হোসেন ল’ কলেজ প্রাঙ্গণে বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এই কথাগুলো বলেন।

জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আফরোজা খান রিতার সভাপতিত্বে বিএনপি সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপি নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএ জিন্নাহ কবিরের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন বিএনপির ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী সায়্যেদুল আলম বাবলু, সহসাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর আহমেদ টিটো, নুরুল ইসলাম আজাদ প্রমুখ।

মির্জা আব্বাস আরও বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কি কারণে আজ জেলে আছেন তা তিনি জানেন না। তিনি তো চোর, ডাকাত বা বদমাশ নন! অথচ ছিনতাইকারী, লুটেরা ছাড়া পেয়ে যায়। ম.খা আলমগীরের মতো লোকেরা ব্যাংক লুট করে পার পেয়ে যায়, হাজী সেলিমের মতো লোক পার পেয়ে যায়, বেনজীরের মতো লোক দেশ ছেড়ে চলে যায়। অথচ খালেদা জিয়া একজন নিরপরাধ ব্যক্তিকে কারান্তরীণ করে রাখা হয়েছে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে দেশে লুটের রাজত্ব কায়েম করছে আওয়ামী লীগ। এর প্রতিবাদ করলে বিএনপি নেতাদের জেলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।