ঈগল-কেটলি-ট্রাক-কাঁচিতে ডুবল ১৪ দলের নৌকা

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দলের শরিক দলের প্রার্থীদের ছয়টি আসনে ছাড় দিয়েছিল আওয়ামী লীগ৷ এসব আসনে নৌকা প্রতীক নিয়েই লড়াই করেছেন বিভিন্ন দলের প্রার্থীরা৷ তারপরও ভরাডুবি ঘটেছে তাদের৷

কোনো আসনে ঈগল, কোনো আসনে ট্রাক, কেটলি বা কাঁচি প্রতীক নিয়ে লড়াই করা প্রার্থীদের কাছে হেরে গেছেন তারা৷

কুষ্টিয়া-২ আসনে নৌকা প্রতীক নিয়েও হেরে গেছেন ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থী জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু৷ নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছেন তিনি৷ স্বতন্ত্র প্রার্থী কামারুল আরেফিন এ আসন থেকে জয়ী হয়েছেন ট্রাক প্রতীক নিয়ে৷ ইনুকে চ্যালেঞ্জ করেই মূলত মিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কামারুল আরেফিন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করে নির্বাচনে অংশ নেন৷

লক্ষীপুর-৪ আসনে জাসদের আরেক নেতা মোশারফ হোসেন নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে হেরেছেন৷ তিনি পরাজিত হয়েছেন ঈগল প্রতীক নিয়ে লড়াই করা স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুল্লাহর কাছে৷ আব্দুল্লাহ লক্ষীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি৷ ২০১৪ সালে এই আসনের সংসদ সদস্যও ছিলেন তিনি৷

জাসদের আরেক প্রার্থী এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন অবশ্য নৌকা নিয়ে জয়ী হয়েছেন৷ কিন্তু ঈগল প্রতীক নিয়ে লড়াই করা স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত সাবেক সংসদ সদস্য জিয়াউল হক মোল্লার সঙ্গে তার ভোটের ব্যবধান ছিল মাত্র দুই হাজারের কিছু বেশি৷

নৌকা নিয়ে নির্বাচন করা জাতীয় পার্টি-জেপির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন মঞ্জু হেরে গেছেন পিরোজপুর-২ আসনে৷ ঈগল প্রতীক নিয়ে লড়াই করে জেতা মহিউদ্দিন মহারাজ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক৷ পিরোজপুর জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রশাসকও ছিলেন তিনি৷ একসময় তিনি আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর এপিএস ছিলেন৷

রাজশাহী-২ আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা হেরে গিয়েছেন আরেক বাদশার কাছে৷ কাঁচি প্রতীক নিয়ে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুর রহমান বাদশা। শফিকুর রহমান বাদশা রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি৷

নৌকা নিয়ে লড়াই করা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন অবশ্য বড় জয় আদায় করে নিয়েছেন বরিশাল ২ আসনে৷ ঈগল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী একে ফাইয়াজুল হকের সঙ্গে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে৷
সূত্র : ডয়চে ভেলে