এমপি বাহার আইন না মেনে নিজের ইজ্জত হারালো: ইসি

কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারকে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের (কুসিক) নির্বাচনি এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

কিন্তু নির্দেশ অমান্য করে তিনি এখনও এলাকায় আছেন। ইসি বলছে, এমপি বাহার আইনের কিছু ফাঁক-ফোকর ব্যবহার করে এলাকায় অবস্থান করছেন।

সোমবার (১৩ জুন) সকালে কুমিল্লায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার রাশেদা সুলতানা এ কথা বলেন। কুমিল্লার ফয়জুন্নেসা বালিকা বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়মে কুসিক নির্বাচনের প্রিসাইডিং কর্মকর্তাদের নিয়ে ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব খান। রাশেদা সুলতানা বলেন, ‘যদি ভোটের পরিস্থিতি ভালো না থাকে তাহলে নির্বাচন স্থগিত করা হবে।

নির্বাচন সুষ্ঠু করার জন্য আমাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা রয়েছে।’ আহসান হাবিব বলেন, ‘ভোটের পরিস্থিতি ভালোই আছে। কোনও ধরনের খারাপ ঘটনা এখনও ঘটেনি।

নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সুষ্ঠু ভোটের জন্য যা যা দরকার সবই করা হয়েছে।’ এমপি বাহারের বিষয়ে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার একজন জনপ্রতিনিধি।

উনারা আইন প্রণয়ন করেন। যদি উনারাই আইন না মানেন তাহলে আর কী বলার! উনাকে তো আর আমরা টেনে-হিঁচড়ে নামাতে পারি না। এখানে ইজ্জত গেলো কার আপনারাই বুঝুন।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা শাহেদুন্নবী চৌধুরী, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান ও জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৮ জুন সন্ধ্যায় নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহারকে নির্বাচনি এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এবার কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২৭ ওয়ার্ডে দুই লাখ ২৯ হাজার ৯২০ জন ভোটার। মোট কেন্দ্র ১০৫টি। এবারের নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীসহ মোট পাঁচজন মেয়র প্রার্থী। ১০৮ জন সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থী ও ৩৬ জন সংরক্ষিত আসনের প্রার্থী।

সুত্রঃ Channel i