‘বাটন টিপে দিতে কেন্দ্রে আমার লোক থাকবে’, আওয়ামী লীগ নেতার সেই বক্তব্য ভাইরাল!

আওয়ামী লীগ নেতার সেই বক্তব্য ভাইরাল-ভোটকেন্দ্রে ইভিএমের বাটন টিপতে না পারলে টিপে দেওয়ার জন্য নিজের লোক রাখবেন বলে প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরী। তিনি আরও বলেছেন, ইভিএম না থাকলে রাতেই

সব ভোট নিয়ে ফেলতেন। চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার চাম্বল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মুজিবুল হক চৌধুরী নির্বাচনী সভায় এমন বক্তব্য দিয়েছেন। গত শনিবার দেওয়া এ বক্তব্যের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

প্রায় ৪১ সেকেন্ডের ওই ভিডিওতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মুজিবুল হক চৌধুরী চট্টগ্রামের ভাষায় ভোটারদের উদ্দেশে হ্যান্ডমাইকে বলেন, ‘তো এখানে ইভিএম একটা করেছে সরকার। তো কী করতাম। একটু কষ্ট করে গিয়ে আঙুলে চাপ দিয়ে ভোট দিতে হবে। চাপ দিতে না পারলে চাপ দেওয়ার

জন্য সেখানে আমি মানুষ রাখব। তো আমাকে একটু দোয়া করবেন সকলে।’ তিনি আরও বলেন, ‘রিকশা করে পারেন, যেভাবে পারেন ভোটটা দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। কারণ, ইভিএমের ভোট। ইভিএম না হলে আমি কাউকে খুঁজতাম না, ভোট আমি মেরে দিতাম। যেভাবে পারি ভোটটা মেরে দিতাম।’

মুজিবুল হক আরও বলেন, ‘ইভিএমে আইডি কার্ড ঢুকিয়ে দিতে হয়, নইলে হয় না। এটা না হলে আমি রাতেই নিয়ে ফেলতাম। তো আপনারা একটু কষ্ট করেন, আপনাদের একটু কষ্ট করে ওটা নিয়ে যেতে হবে। গিয়ে মেশিনে ফিঙ্গার দিতে হবে। কথা বুঝেননি? আমি রতের খেলোয়াড়, একসাথে ২০ হাজার নিয়ে ফেলি যে ওটা।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, চাম্বাল ইউনিয়নের বাংলাবাজার ১ নম্বর ওয়ার্ডে নির্বাচনী প্রচারে মুজিবুল হক চৌধুরী এমন বক্তব্য দেন। এ সময় কেউ কেউ তাঁর প্রতি সমর্থন জানান। আবার কেউ কেউ হাসছিলেন।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও এবং বক্তব্যের বিষয়ে গতকাল রোববার ফোনে জানতে চাইলে মুজিবুল হক প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি আপনাকে একটু পর ফোন দিচ্ছি। তবে এক দিন পরও তাঁর ফোন আসেনি। তিনি আর ফোনও ধরেননি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফয়সাল আলম প্রথম আলোকে বলেন, ভিডিও লিংকটি দেখেছি। আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আগামী ১৫ জুন এখানে ভোট গ্রহণ হবে।prothomalo