সুইডেন অস্বীকার করার পর ‘সেই অভিযোগের’ প্রমাণ হাতেনাতে দিল তুরস্ক

সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন বুধবার বলেছেন, সুইডেন ‘স্পষ্টতই’(পিকেকে কুর্দিস) সন্ত্রাসী সংগঠনকে অর্থায়ন করছে না বা অস্ত্র দিচ্ছে না।

সুইডেন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর জন্য একটি কেন্দ্রস্থল, তুরস্কের এমন অভিযোগের জবাবে এ কথা বলেন সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন।স্টকহোমের একটি সংবাদ সম্মেলনে অ্যান্ডারসন বলেন, আমরা সন্ত্রাসবাদী সংগঠনকে অর্থায়ন করি না, কোনো অস্ত্রও জোগান দেই না।

কিন্তু সুইডিশ প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন এমন দাবি করার পর পরই দক্ষিণ ইরাকে কুর্দিস সন্ত্রাসী সংগঠন পিকেকে-কের একটি আস্তানা থেকে সুইডেনের তৈরি ও পাঠানো ট্যাংক বিধ্বসী অস্ত্র পাওয়ার দাবি জানিয়েছে তুরস্কের নিরাপত্তা বাহিনী।

তিনি জঙ্গি বা সন্ত্রা’সীদের অস্ত্র দেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করার পরই হাতেনাতে এর প্রমাণ দিয়েছে তুরস্ক।তুরস্কের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দক্ষিণ ইরাকে পাঁচজন তার্কিস সেনা জঙ্গি হামলায় নিহত হওয়ার পর সেখানে অভিযান চালায় তুরস্ক।

গণমাধ্যম টিআরটি হার্বার জানিয়েছে, এই অভিযানে সুইডেনের সাব বোফোরসের তৈরি এটি-৪ মডেলের ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।তুরস্কের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা আরও জানিয়েছে, পিকেকে সন্ত্রাসীদের সেই আস্তানা থেকে অস্ত্র, সেনা যান, টিভি, স্যাটেলাইট, হিটার, বিদ্যুতের জেনারেটর ও লাইফ সাপোর্টের যন্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে এটি-৪ ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্রটি এই ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্রগুলোর মধ্যে অন্যতম হালকা অস্ত্র।এটির ওজন মাত্র ৬.৪ কেজি। লম্বায় ৪০ ইঞ্চি।সুইডেনের সাব বোফোরস এটি তৈরি করার পর যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী এই ট্যাংক বিধ্বংসী অস্ত্রটিকে মোডিফাই করে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর মোডিফাইকৃত অস্ত্রটিকেও স্বীকৃতি দিয়েছে সুইডেন। আর এ দুটির মধ্যে পার্থক্যও খুব কম।সূত্র: ডেইলি সাবাহ/যুগান্তর