সালাম দিতে দেরি> ঢাবি ছাত্রকে মারধর ছাত্রলীগকর্মীর

ঢাবি ছাত্রকে মারধর করার অভিযোগ ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে-সালাম দিয়ে করমর্দন করতে দেরি হওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রকে কিল-ঘুষি, থাপ্পড় ও মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগকর্মীর বিরুদ্ধে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলের ২৪৯ নম্বর কক্ষে মঙ্গলবার রাত ১১টার

কিছু সময় পর মারধরের এ ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার ছাত্র সাজ্জাদুল হক নৃবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষে (২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ) অধ্যয়নরত। তাকে মারধরে অভিযুক্ত মানিকুর রহমান ওরফে মানিক রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের (২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষ) ছাত্র। তিনি হল শাখা

ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিয়াম রহমানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। ভুক্তভোগী সাজ্জাদুল হক বলেন, রাতে আমি আমার কক্ষে (২৪৯ নম্বর) অনলাইনে একটি টিউশনের ক্লাস নিচ্ছিলাম। এর মধ্যে মানিকুর রহমানসহ চতুর্থ বর্ষের কয়েক ছাত্র আমাদের কক্ষে আসেন।

তারা আমাকে ডাকেন। তারা চাইছিলেন, আমি উঠে গিয়ে তাদের সালাম দিই এবং তাদের সঙ্গে করমর্দন করি। কিন্তু অনলাইনে ক্লাস চলছিল বলে আমি তাদের বলি যে, ক্লাসটা শেষ করে আমি উঠছি। ক্লাস চলার সময়ই মানিকুর আমাকে কলার ধরে টান দেন। একটু পরে ক্লাস

শেষ করে খাটের সামনে যেতে না যেতেই মানিকুর আমার কান ও মুখে সজোরে থাপ্পড় দেন। মানিকুর আমাকে এলোপাতাড়ি কিল-ঘুষি মারতে থাকেন এবং একপর্যায়ে জোরে লাথিও দেন। এ ঘটনায় আজ বুধবার সকালে সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ মো. মকবুল হোসেন ভূঁইয়া বরাবর লিখিত

অভিযোগ করেছেন বলে জানান সাজ্জাদুল হক। প্রাধ্যক্ষ বলেছেন, ঘটনার সত্যতা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে সূর্যসেন হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিয়াম রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, কথাকাটাকাটি থেকে থাপ্পড় দেওয়ার ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনার পর মানিকুর

রহমান দুঃখ প্রকাশও করেছেন। দুজনের সঙ্গে কথা বলে আমরা বিষয়টি ঠিক করে নেব। সূর্যসেন হলের আবাসিক শিক্ষক অধ্যাপক মোহাম্মদ মোবারক হোসেন জানান, অভিযোগটি পেয়েছেন। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হবে।jugantor