হঠাৎ জিয়াউদ্দিন বাবলুর ছেলেকে মারধর সংসদ সদস্য আদেলুরের!

জিয়াউদ্দিন বাবলুর ছেলেকে মারধর-জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রয়াত মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর ছেলে আশিক আহমেদকে মারধর করেছেন দলের সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান। গতকাল সোমবার দুপুরের পর জাপার চেয়ারম্যানের বনানীর কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, আশিক আহমেদ জাপার চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলার সভাকক্ষে জাতীয় যুব মহিলা পার্টির একটি অনুষ্ঠানে ছিলেন। আদেলুর রহমান সেখান থেকে আশিককে ডেকে তাঁর কক্ষে নিয়ে মারধর করেন। পরে হইচই পড়লে অন্যরা আশিককে কক্ষ থেকে বের করে আনেন। খবর পেয়ে

জিয়াউদ্দিন আহমেদের ছোট ভাইও ছুটে আসেন। আশিক আহমেদ জাপার কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব পদে আছেন। আর সংসদ সদস্য আদেলুর রহমান (নীলফামারী-৪ আসন) দলের ভাইস চেয়ারম্যান ও কোষাধ্যক্ষ। তিনি জাপার চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের বোনের ছেলে। জিয়াউদ্দিন আহমেদের ছেলে আশিক আহমেদ

প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার বাবাও কখনো আমার গায়ে হাত তোলেনি। অথচ তিনি দলীয় কার্যালয়ে প্রকাশ্যে আমাকে কিল–ঘুষি মেরেছেন। গায়ের কাপড় ছিঁড়ে ফেলেছেন।’ জানা গেছে, সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিরোধের জের ধরে এই মারধরের ঘটনা ঘটে। আদেলুর রহমানের বোন মেহে জেবুন্নেসা (টুম্পা)

আশিকের সৎমা। আশিকের মায়ের মৃত্যুর অনেক দিন পর ২০১৭ সালে তাঁর বাবা মেহে জেবুন্নেসাকে বিয়ে করেন। বাবলু ২০২১ সালের অক্টোবরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যান। জানতে চাইলে মেহে জেবুন্নেসা তাঁর ভাইয়ের সঙ্গে আশিকের কথা–কাটাকাটি হয়েছে বলে জানান।

সংসদ সদস্য আদেলুর রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি আশিকের মামা। তাঁকে আদর করি, গতকাল একটু শাসন করেছি। কারণ, সে আমার বোনের সঙ্গে বেয়াদবি করেছে। তাই মাথা ঠিক রাখতে পারিনি।’ অবশ্য আশিক আহমেদ জানান, তিনি ও তাঁর অভিভাবকেরা বিষয়টি দলের চেয়ারম্যানকে জানিয়েছেন।prothomalo