এবার ঘরোয়া ক্রিকেট থেকেও বাদ পড়লেন সৌম্য

ওদের হাতে বিশ্বকাপ মশাল। ওদের কাছে ১৬ কোটির প্রত্যাশা। ওরাই স্বপ্নের ধারক। ওরা বাংলার টাইগার। ওরা বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্নসারথি। ওদেরই একজন সৌম্য সরকার।

তবে বর্তমানে সময়টা খারাপ যাচ্ছে তাঁর। অমিত সম্ভাবনা নিয়ে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে চাপালেও ৮ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারটা মসৃণ নয় সৌম্য সরকারের।

প্রতিভার জোরে এক সময় ছন্দে না থাকলেও টিকে ছিলেন জাতীয় দলে। কিন্তু এখন বাংলাদেশ দলে নিয়মিত পারফর্মার বেড়ে যাওয়ায় নিজের যোগ্যতা প্রমাণ দিতে হচ্ছে সবাইকে।

সে মারপ্যাঁচে শেষ কয়েকটি সিরিজে জাতীয় দলের বাইরে সৌম্য। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণ দিতে পারলে ফেরার দরজা খোলা তার জন্য। তবে এখানেও ব্যর্থ এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অধারাবাহিক পারফরম্যান্সে জাতীয় দল থেকে বাদ পড়ার পর এবার ঘরোয়া ক্রিকেটের একাদশেও জায়গা হারালেন সৌম্য। মঙ্গলবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আবাহনী লিমিটেডের মুখোমুখি হয় মোহামেডান।

এ ম্যাচে একাদশে রাখা হয়নি সৌম্যকে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফর্মহীনতায় সৌম্যকে একাদশে রাখেনি মোহামেডান টিম ম্যানেজমেন্ট।চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে খেলছেন সৌম্য।

যেখানে নিজ ব্যাটে রানের দেখা পাচ্ছেন না সৌম্য। ডিপিএলে ৬ ইনিংসে ব্যাট হাতে নেমে ফিফটি মাত্র একটি। আরেক ইনিংসে করেছেন ২৩ রান। বাকি ৪ ইনিংসে ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্কের কোটা। বল হাতে ৭ উইকেট নিলেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় এবার দল থেকেই বাদ পড়লেন সৌম্য।