অবশেষে অবসরের ঘোষণা, চাইলেও আর টেস্ট ক্রিকেটে দেখা যাবে না তাকে

চাইলেও আর টেস্ট ক্রিকেটে দেখা যাবে না তাকে-টেস্ট ক্রিকেট থেকে আনুষ্ঠানিক অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। গত জুলাইয়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নিজের ৫০তম টেস্ট খেলেছেন তিনি। ওই ম্যাচের মাঝপথে ড্রেসিংরুমে নিজের সতীর্থদের অবসরের সিদ্ধান্ত জানান তিনি। কিন্তু গণমাধ্যমে তা প্রকাশ

করছিলেন না। কেন? সেই উত্তরটাও অজানা ছিল। অবশেষে অবসরের চার মাস পর মাহমুদউল্লাহ আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিলেন। বুধবার (২৪ নভেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি টেস্টকে বিদায় বললেন। রিয়াদ টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বেশ আগে, গত জুলাইয়ে। দীর্ঘ ১৬ মাস পর টেস্ট

দলে ফিরে হারারে টেস্টে দেড়শ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। মহাকাব্যিক এই ইনিংস খেলে রিয়াদ সতীর্থদের জানিয়ে দেন, অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন তিনি। তবে ঐ ম্যাচ চলাকালে বা ম্যাচ শেষেও রিয়াদ অবসরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেননি। ২২০ রানের রেকর্ড গড়া ব্যবধানে জয়ের ম্যাচটিতে

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। দলও জয়টি তাকেই উৎসর্গ করে। তখন রিয়াদ আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও ক্রিকেটের সব মহলে হারারে টেস্টকেই তার ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট হিসেবে গণ্য করা হয়। যদিও রিয়াদের এই অবসরের সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

রিয়াদ সেই আহ্বানে সাড়া দেননি। বাংলাদেশের হয়ে ৫০টি টেস্ট খেলেছেন রিয়াদ। এই ফরম্যাটে আছে পাঁচটি শতক ও ১৬টি অর্ধশতক। ৩৩.৪৯ গড়ে রান করেছেন ২৯১৪। টেস্টে বাংলাদেশের ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক রিয়াদ। পার্ট টাইম বোলিংয়ে নামের পাশে আছে ৪৩টি উইকেটও। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক হিসেবে টেস্টে দলকে নেতৃত্বও দিয়েছিলেন তিনি।bd24live