অবশেষে মুস্তাফিজের ভক্ত সেই রাসেলের ব্যাপারে যে আদেশ দিল আদালত

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জৈব সুরক্ষা বলয় ভেঙে মাঠে ঢুকে পড়া সেই দর্শক রাসেলের রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। আজ রবিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া এ আদেশ দেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর মডেল থানার এসআই সঞ্জীব কুমার সাহা ৫৪ ধারায় রাসেলকে গ্রেফতার দেখিয়ে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এর আগে, মুস্তাফিজের সেই ভক্ত কুমিল্লার ছেলে রাসেলকে ৫৪ ধারায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার দেখিয়েছিল পুলিশ।

বাংলাদেশ-পাকিস্তানের সিরিজের সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু হঠাৎ ঘটল এমন একটি ঘটনা! জৈব সুরক্ষা বলয় ভেঙে মিরপুরে খেলার মাঠে ঢুকে পড়া মুস্তাফিজ ভক্ত রাসেল নামে এক ছেলে। তবে বিস্তারিত তথ্য জানতে আজ সেই ছেলের সাত দিনের রিমান্ডে চায় পুলিশ।

রোববার (২১ নভেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভুইয়ার আদালত মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক সঞ্জীব কুমার সরকার তার রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে হাজির করেন। আজই রিমান্ডের আবেদন বিষয়ে শুনানি হবে।

আদালতের সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রোববার সকালে রাসলকে ৫৪ ধারায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার দেখানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিরপুর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম।

তিনি বলেন, রাসেলকে রাতভর জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আমরা সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার দেখিয়েছি। আজ রাসেলকে ৫৪ ধারায় আদালতে হাজির করা হবে। আমরা তাকে আরও দীর্ঘতর জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আদালতের কাছে রিমান্ড আবেদন করব। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনো মামলা হয়নি।

এর আগে শনিবার রাতে রাসেলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছিলেন মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, ঘটনার পরপরই রাসেলকে আমরা আটক করে থানায় নিয়ে এসেছি। সে ঠিক কী কারণে জৈব বেষ্টনি ভেদ করে মাঠে প্রবেশ করেছে তা আমরা সঠিকভাবে জানার চেষ্টা করছি।

তবে আমরা প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি, সে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় মুস্তাফিজের ভক্ত। তবে মাঠে প্রবেশ করার তার ভিন্ন কোনো উদ্দেশ্য ছিল কি না সেসব বিষয়ও আমরা জানার চেষ্টা করছি।