গুরুতর ভুলের জন্য নিষিদ্ধ আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল ম্যাচের রেফারি

প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের কনুইয়ের আঘাতে মুখ থেকে ঝরল রক্ত। কিন্তু ভিএআর সেটা দিল না ফাউল! ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচে রেফারিদের এমন ‘গুরুতর ভুল’ মেনে নিতে পারেনি কনমেবল।

দক্ষিণ আমেরিকার ফুটবল সংস্থা নিষিদ্ধ করেছে ওই ম্যাচের দুই রেফারিকে আর্জেন্টিনার সান হুয়ানে বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোরে হওয়া লাতিন আমেরিকার দুই পরাশক্তির মহারণে ঘটে এমন কাণ্ড।

৪২টি ফাউলের ম্যাচ শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্র হয়। প্রথমার্ধের শেষের দিকে আর্জেন্টিনার ডি-বক্সে ডিফেন্ডার নিকোলাস ওতামেন্দির কনুইয়ের আঘাতে রাফিনিয়ার মুখ দিয়ে রক্ত ঝরতে দেখা যায়।

ব্রাজিলের পক্ষ থেকে পেনাল্টির জোরালো আবেদন উঠলেও ভিএআর সেটা নাকচ করে দেয়। কিন্তু কনমেবল বলছে, ওতামেন্দির এভাবে হাতে ব্যবহার ছিল ‘হিংস্র আচরণ।’

এমনিতে চুপচাপ স্বভাবের হলেও এই ম্যাচের পর রেফারি ও ভিএআরের বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানান তিতে। সিদ্ধান্তগুলো ব্রাজিল কোচের কাছে ছিল অকল্পনীয়।

তার মতে, রাফিনিয়াকে কনুই দিয়ে ওতামেন্দির আঘাত করা ভিএআরে না দেখা অসম্ভব। রেফারিদের ম্যাচের পারফরম্যান্স পর্যালোচনা করে বৃহস্পতিবার নিজেদের সিদ্ধান্ত জানায় কনমেবল।

“প্রধান রেফারি আন্দ্রেস কুইয়া ও ভিএআর রেফারি এস্তেবান ভেগার পারফরম্যান্স পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে এবং সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, তারা গুরুতর ও সুস্পষ্ট ভুল করেছেন।”

দুই রেফারিকে ‘অনির্দিষ্ট সময়ের’ জন্য নিষিদ্ধ করার কথা জানিয়েছে কনমবল। লাতিন আমেরিকা থেকে কাতার বিশ্বকাপ নিশ্চিত করেছে এই দুই দল। ১৩ ম্যাচে ১১ জয় ও দুই ড্রয়ে ব্রাজিলের পয়েন্ট ৩৫। সমান ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে আর্জেন্টিনা।