গাদ্দাফির সময়ের যে ১৬ টি জিনিস যা লিবিয়া জনগন আর কোনদিন দেখবে না

১) কোন বিদ্যুৎ বিল ছিলনা লিবিয়াতে সব নাগরিকের জন্য এটা বিনামূল্য ছিল। ২) আইন অনুযায়ী লিবিয়ান নাগরিকদের কেউ ব্যাংক লোন নিলে তা ছিল সুদ মুক্ত।

৩)প্রতিটি মানুষের নিজস্ব বাড়িঘর থাকা ছিল মৌলিক অধিকার। ৪)প্রত্যেক নব নব দম্পতি 50 হাজার ডলার সমমূল্যের এপারমেন্ট পেত তাদের সংসার শুরু করার জন্য।

৫)শিক্ষা এবং চিকিৎসা ছিল ফ্রি গাদ্দাফীর আগে যেখানে মাত্র 25 শতাংশ লোক শিক্ষিত। গাদ্দাফির সময় সেটা হয়েছিল 83 পার্সেন্ট।

৬)যদি কোন লিবিয়ান কৃষিকে পেশা হিসেবে নিতে চাইতো তবে সরকারের পক্ষ থেকে তাকে জমি ফার্ম হাউস বীজ থেকে শুরু করে সব ধরনের সহায়তা করা হতো।

৭)যদি কোন লিবিয়ান পড়ালেখা বা চিকিৎসার জন্য অন্য কোন দেশে যাওয়ার প্রয়োজন হতো যেটা লিবিয়াতে সম্ভব না। তাহলে সরকারের পক্ষ থেকে 23 মাসিক ডলার দেওয়া হতো।

৮)কোন লিভিয়ান গাড়ি কিনলে তাতে 50% পর্যন্ত ছাড় দেওয়ার নিয়ম ছিল। ৯)প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ছিল 0.14 ডলার।

১০) লিবিয়া একমাত্র দেশ ছিল যাদের বহির্বিশ্ব এ কোন ঋণ ছিল না। উপরন্তু 150 মিলিয়ন ডলার ছিল তাদের রিজার্ভে
১১) কোন লিবিয়ান গ্রাজুয়েশন করার পরও যদি চাকরি না পেত সরকার থেকে তাদের জন্য একটা নির্দিষ্ট টাকা দেয়া হতো যতদিন একটা চাকরি না হয়।

১২)তেল বিক্রি করে লিবিয়ান সরকারের যা আয় হতো তার একটা অংশ লিবিয়ান প্রতিটি নাগরিকের ব্যাংক একাউন্টে জমা হতো।

১৩) কোন মা সন্তান জন্ম দিলে তাকে পাঁচ হাজার ডলার দেওয়া হতো। ১৪) 40 পিস পাউরুটি কিনতে খরচ কত মাত্র 0.15 ডলার।

১৫) 25% লোকের বিশ্ব বিদ্যালয়ের ডিগ্রি ছিল। ১৬)গাদ্দাফি প্রথম বিশ্বের সবচেয়ে বড় সেচ প্রকল্প চালু করেছিল যেটা এখনো মানব ইতিহাসের এখনো সবচেয়ে বড় প্রকল্প।