করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বি-পর্যস্ত ভারত> অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে গেল আইপিএল!

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বি-পর্যস্ত গোটা ভারত। দেশজুড়ে চলছে হাহাকার। এমন অবস্থায় দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে চলমান আইপিএলে’র প্রথম ম্যা-চটি যেদিন অ-নুষ্ঠিত হয়েছিল, সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষো-ভ উ-গড়ে দিয়েছিলেন নেটিজেনরা। মৃ-ত্যুপুরী নয়াদিল্লিতে

আইপিএল আ-য়োজনের যৌ-ক্তিকতা কোথায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন তুলেছিলেন। তবে এবার করোনার প্রকোপ বাড়ায় অনির্দিষ্টকালের জন্য আইপিএল স্থগিত করেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। করোনার কারণে আইপিএল আয়োজন নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা।

ইতোমধ্যে দিল্লির উচ্চ আদালতে টুর্নামেন্ট বন্ধ চেয়ে মা-মলাও করা হয়েছে। কঠোর জৈব সুরক্ষার মধ্যেই চলছিল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। এখন পর্যন্ত ২৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলেও মাঝপথে করোনায় আ-ক্রান্ত শুরু হতে শুরু করেছেন ক্রিকেটার ও স্টাফরা। ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। দৈনিক আ-ক্রান্তের গড় সং-খ্যা ছুঁ-য়েছে তিন লাখে।

মৃ-ত্যুর সং-খ্যাও নেহায়েত কম নয়, ৩ হাজারের ওপর মৃত্যু হচ্ছে নিয়মিত। দেশের এমন প-রিস্থিতিতে কেন আইপিএল? এই সময়ে আইপিএল বন্ধের দাবিতে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছেন করন এস ঠুকরাল নামের এক আইনজীবী। আবেদনে লেখা হয়েছে, মানুষের স্বাস্থ্য অপেক্ষা আইপিএল’কে কেন অগ্রাধিকার দিচ্ছে। ওই আবেদনে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে আইপিএল নয়, কোভিড-কেয়ার সেন্টার বানানোর।

পিটিশনার করন এস ঠুকরাল এবং ইন্দর মোহন সিং এমন পরিস্থিতিতে কাঠগড়ায় তুলেছেন দিল্লির কেন্দ্রীয় সরকার, বিসিসিআই, আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল, দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে। পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘দিল্লিতে যখন সাধারণ মানুষ হাসপাতালে চিকিৎসা পাচ্ছে না, শে-ষকৃ-ত্যের জন্য জা-য়গা পাচ্ছে না, মু-মুর্ষ রো-গীর জন্য অক্সিজেনের এবং ওষু-ধের অ-ভাবে ম-রছে,

সেখানে আইপিএলের ম্যাচ সাধারণ মানুষের মা-নসিক অ-বস্থা ন-ষ্ট করছে। বি-শেষ করে যারা তাদের প্রি-য়জনদের জীবন বাঁ-চাতে উ-দ্যত। তবে বর্তমান পরিস্থিতি ও আইপিএলে বেশ কয়েকটি দলের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তার কোভিড প-জিটিভ হওয়ার খবরে দিল্লি থেকে সরে যেতে পারে ম্যাচ। এক্ষেত্রে মু-ম্বাইতে নতুন সূচিতে হতে পারে স্থ-গিত ম্যাচগুলো।bd24live