যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানার সন্ধান, অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

পাবনায় নিজ কারখানায় নকল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির দায়ে একজন এবং অস্ত্র-গুলিসহ আরও এক যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।গ্রেপ্তাকৃতরা হলেন জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মো. আজমল শেখ (৩৫) মো. রাজ আহম্মেদ রনি (৪০)।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে (ডিবি অফিস চত্বরে) এক সংবাদ সম্মেলনে রাতের অভিযানের তথ্য তুলে ধরেন পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বুধবার রাতে পৌর এলাকার ছোট শালগাড়িয়া মহল্লায় অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান পরিচালনা করে ডিবি পুলিশের একটি দল। সেখানে গিয়ে হাতে নাতে এলাকার সন্ত্রাসী ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি মো. আজমল শেখকে আটক করে। এ সময় তাঁর কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও সাত রাউন্ড তাজা গুলি জব্দ করা হয়।

এ সময় একই স্থানে আরও একটি অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানার সন্ধান পায় ডিবি পুলিশ। সেখানে অভিযান চালিয়ে বিপুল মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন কোম্পানির নামে ছাপাকৃত ফ্রুট সিরাপ উদ্ধার করা হয়। সেখানে এই অবৈধ গোপন কোম্পানির মালিক মো. রাজ আহম্মেদ রনিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক অসিত কুমার ও সাগর কুমার সাহা বাদী হয়ে আজমল শেখের নামে অবৈধ অস্ত্র আইনে ও রাজ আহমেদ রনির নকল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির অভিযোগে মামলা করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. রোকনুজ্জামান, ডিবি ওসি মো. আব্দুল হান্নান, ডিবি পুলিশ পরিদর্শক জিন্নাত সরকার। এই অভিযানের পৃথক দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে। পৃথক দুটি মামলার (ডিবি) পুলিশের উপপরিদর্শক অসিত কুমার ও সাগর কুমার সাহা বাদী হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে পাবনা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আলী মতুর্জা বিশ্বাস সনি বলেন, ‘যুবলীগের নাম ভাঙিয়ে কেউ সন্ত্রাসী ও অবৈধ কর্মকাণ্ড করলে তাঁর দায় দল নেবে না। তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সূত্র: ntv