‘গ্রেপ্তার হলে জেলে, মেরে ফেললে কবরে’

‘আমি সাহস করে সত্য কথা বলব। আমি অন্যায়, অবিচার, জুলুমের বিরুদ্ধে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাব। গ্রেপ্তার হলে জেলে থাকব, মেরে ফেললে কবরে থাকব।

’ নোয়াখালীর বসুরহাটের মেয়র কাদের মির্জা গতকাল বৃহস্পতিবার হরতাল পালন শেষে নেতাকর্মীদের সামনে এ বক্তব্য দেন। এ সময় তিনি তাঁর অবস্থান থেকে সরে না এসে আরো কঠিন পদক্ষেপ নেওয়ার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

নোয়াখালীর জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসিকে প্রত্যাহার এবং নোয়াখালীর অপরাজনীতি বন্ধের দাবিতে কাদের মির্জা আধাবেলা এই হরতালের ডাক দিয়েছিলেন।

একই দাবিতে আজ শুক্রবার এবং আগামীকাল শনিবার স্থানীয় থানার সামনে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণাও দেন বসুরহাটের মেয়র।

এর আগে কোম্পানীগঞ্জে গতকাল আধাবেলা হরতাল শান্তিপূর্ণভাবে পালিত হয়। হরতালের কারণে বন্ধ ছিল উপজেলামুখী সব ধরনের যান চলাচল। বিভিন্ন সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে অবরোধ করেন কাদের মির্জার কর্মীরা।

সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কাদের মির্জার নেতৃত্বে হরতালের সমর্থনে বসুরহাট বাজারে ঝটিকা মিছিল বের করা হয়। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

কাদের মির্জা বলেন, ‘যে সত্য কথা বলা শুরু করেছি, তা বলে যাব। যদি বহিষ্কার করা হয়, আমি বঙ্গবন্ধুর কথা বলব, আওয়ামী লীগ করব, আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের কথা বলব।’