সুন্দর আগামী গড়তে আত্মগঠনের বিকল্প নেই-ডা. শফিকুর রহমান

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী চট্টগ্রাম মহানগরীর উদ্যোগে ছাত্র সংগঠনের সাবেক সদস্য-সাথীদের নিয়ে এক প্রীতি সম্মেলন চট্টগ্রাম মহানগরী আমীর ও কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মুহাম্মদ শাহজাহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মুহতারাম আমীরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাবেক এমপি আ ন ম শামসুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও চট্টগ্রাম অঞ্চল পরিচালক উপাধ্যক্ষ আব্দুর রব, চট্টগ্রাম দক্ষিন জেলা আমীর মুহাম্মদ জাফর সাদেক ও উত্তর জেলা আমীর মুহাম্মদ নুরুল আমিন চৌধুরী, ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি সালাউদ্দিন আইয়ুবী।

এছাড়া মহানগরীর নায়েবে আমীর ও সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি আ জ ম ওবায়েদুল্লাহ, নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শাহজাহান চৌধুরী, নায়েবে আমীর মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম, সেক্রেটারি অধ্যক্ষ মুহাম্মদ নুরুল আমিন, এসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি মুহাম্মদ উল্লাহ ও ফয়সাল মুহাম্মদ ইউনুস, সাংগঠনিক সেক্রেটারি আনোয়ারুল আলম চৌধুরী, ইসলামী ছাত্রশিবির চট্টগ্রাম মহানগরী উত্তরের সভাপতি আমান উল্লাহ আমান, মহানগরী দক্ষিণের সভাপতি ডা. হাবিবুর রহমান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি আমজাদ হোসেন।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি আমীরে জামায়াত ডা: মফিকুর রহমান বলেন, পরকালীন মুক্তিই মুমিন জীবনের একমাত্র সফলতা। সে লক্ষ্যে আমাদের সকলকে ছাত্র জীবনে ইসলামের রঙে রাঙ্গানো অতীতকে ধারণ করে বৃহত্তর অঙ্গনে দ্বীন প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন নিয়ে ঐক্যবদ্ধ ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে। বর্তমান প্রযুক্তি ও চ্যালেঞ্জের এ সময়ে একমাত্র যুব সমাজই একটি আধুনিক সভ্যতা ও কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দায়িত্ব পালন করতে পারে। তাই চট্টগ্রাম মহানগরীর সাবেক সকল সদস্য ও সাথী ভাইদেরকে এই ঐতিহাসিক ভূমিকা পালনের মাধ্যমে পরকালীন মুক্তি নিশ্চিত করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।

ছাত্র জীবনের শপথবদ্ধ জিন্দেগীর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, আগামী জীবনকে আরো সুন্দর ও গতিশীল পরিবার ও সমাজ পরিচালনার লক্ষ্যে বৃহত্তর আন্দোলনে বাইয়াতের কর্মী হিসেবে নিজেকে তৈরী করার বিকল্প নেই। দেশ ও জাতির প্রয়োজনে যে কোন ধরনের ত্যাগ স্বীকার করতে তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান। ‘সংগঠন আজীবন’ শ্লোগানে আয়োজিত প্রীতি সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে মহানগরী আমীর মুহাম্মদ শাহজাহান বলেন,

‘শহীদের রক্তস্নাত এ জমিনে আবারো সকলকে দূর্বার গতিতে জেগে উঠার মাধ্যমে ঐতিহাসিক দারুল ইসলাম চট্টগ্রাম মহানগরীর ইসলামী আন্দোলনের ঐতিহ্যকে পূনরুদ্ধার করতে হবে ইনশাআল্লাহ। প্রায় দুই সহস্রাধিক সাবেক সদস্য-সাথীদের উপস্থিতিতে প্রীতি সম্মেলনে আরো শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ছাত্র সংগঠনের সাবেক জনশক্তি চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন পেশার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, শিল্পপতি, শিক্ষাবিদ, ডাক্তার, ইনঞ্জিনিয়ার, এডভোকেট, সাংবাদিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ।