নারীর সঙ্গে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় আটকের পর আ.লীগ নেতাকে পিটুনি

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার নতিপোতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম মমিনকে (৫৫) এক নারীর (৩৫) সঙ্গে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় আটকের পর গণপিটুনি দিয়েছে স্থানীয়রা।

শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার ভগিরাতপুর গ্রামের একটি বাড়ি থেকে তাকে আটক করে স্থানীয়রা।

গ্রামবাসীর ভাষ্য, মমিনুল ইসলাম শনিবার সন্ধ্যায় দিকে এক নারীকে নিয়ে ওই বাড়িতে যান। সেখানে তাদেরকে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় আটক করে গণপিটুনি দেয়া হয়।

মারধরে মমিনুল মাথায় আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হন।খবর পেয়ে দামুড়হুদা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে থানায় নিয়ে যায়।

গ্রামবাসীর অভিযোগ, ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে এবং মমিনুল ইসলামকে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিতে একটি মহল তদবির করছে।

এ ঘটনার পর এলাকাবাসী তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে বিদ্যালয়ের পদ থেকে মমিনুলকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন।তবে অভিযুক্ত মমিনুল ইসলাম নিজেকে ‘ষড়যন্ত্রের শিকার’ বলে দাবি করেছেন।

দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল খালেক জানান, এ ঘটনায় দুটি পক্ষ থানায় আলাদা দুটি এজাহার দায়ের করেছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।