আত্মহত্যা নিয়ে যা বললেন মুশফিকুর রহমান

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি গোল্ডকাপ ক্রিকেট টিমে চান্স না পাওয়ায় সজীবুল ইসলাম সজীব (২২) নামে জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের একজন তরুণ ক্রিকেটার আত্মহত্যা করেছেন।

শনিবার দিনগত রাতে রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার ঝালুকা আমগাছী গ্রামের বাড়িতে ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন।
২২ বছর বয়সী ক্রিকেটার সজীবের আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না মুশফিক। বিষয়টি তাকে মর্মাহত করেছে। হৃদয়ে নাড়া দিয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মুশফিক। তিনি লিখেছেন– ‘আমরা সবাই ক্রিকেট খেলাটি ভালোবাসি। তবে একটা জিনিস মনে রাখবেন, ক্রিকেটের বাইরেও একটা জীবন আছে। আমাদের দেশের প্রতিভাবান খেলোয়াড় মোহাম্মদ সজীবের আত্মহত্যার খবরে আমি অত্যন্ত মর্মাহত।’

এর পর মুশফিক লেখেন, ‘ঘটনা যাই হোক না কেন, আমি সবাইকে অনুরোধ করব– আত্মহত্যার মতো সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে নিজের পরিবার ও ভালোবাসার মানুষদের ব্যাপারে ভাবুন। আত্মহত্যা কখনও সমাধান নয়। আমাদের সবার জন্য আল্লাহর নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। তার পরিকল্পনায় আমাদের বিশ্বাস রাখতে হবে। বিদেহী আত্মা ও তার পরিবারের জন্য দোয়া রইল (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।)’

জানা গেছে, গত ১৩ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ ক্রিকেট দলের জন্য খেলোয়াড়দের তালিকা প্রকাশ হয়। সেই তালিকায় সজীবের নাম ছিল না। ফলে ওই রাতেই সে হতাশ হয়ে গ্রামে ফিরে আসে। শনিবার রাতে নিজ ঘরে আত্মহত্যা করেন।

দুর্গাপুর থানার ওসি হাসমত আলী রোববার বিকালে জানান, সজীব জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৫, ১৭ ও ১৯ দলের ক্রিকেটার ছিলেন। সজীব জাতীয় দলের হয়েছে বিদেশের মাটিতে বেশ কিছু ম্যাচও খেলেছেন।

রাজশাহীর দুর্গাপুর থানার ঝালুকা গ্রামের বাসিন্দা সজীবুল ছিলেন রাজশাহী কলেজের ইতিহাসে তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।