এবার নিজের ভাগ্নিকেই বিয়ে করছেন প্রভুদেবা?

প্রভুদেবা। এই নামটাই যথেষ্ট, তাঁর সম্পর্কে আর কিছু বলারই থাকে না। সবার চোখের সামনে ভেসে ওঠে তাঁর অসাধারণ নাচ। তাঁর নাচের ছন্দে পা মেলাননি এমন অভিনেতা বর্তমানে বলিউডে খুঁজে পাওয়া খুব কঠিন।

শুধু কোরিওগ্রাফার হিসাবেই নয়, বলিউডে একজন সফল পরিচালক হিসাবেও নাম করেছেন প্রভুদেবা। জুটেছে পুরস্কার। কিন্তু কর্মক্ষেত্রে সফল হলেও ব্যক্তি জীবনে বেশ টানাপোড়েনের মধ্যে দিয়েই যেতে হয়েছে তাঁকে।

১৯৯৫ সালে রামলতার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন প্রভু। শোনা যায় নাচ শিখতে গিয়েই রামলতার সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। এরপর হয় প্রেম। রামলতা মুসলিম বলে প্রভুদেবাকে বিয়ে করার জন্য হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন।

তাই বিয়ের পরে নিজের নাম রামলতা থেকে লতা করে নেন তিনি| তাঁদের তিন সন্তানও রয়েছে। ২০০৮ সালে প্রভুদেবের বড় ছেলে মারা যান ক্যান্সারে, গুঞ্জন শুরু হয়, এই সময় থেকেই নাকি স্ত্রীর কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন প্রভুদেবা।

আর এরপরই দক্ষিণী অভিনত্রী নয়নতারার প্রতি আকৃষ্ট হতে শুরু করেন প্রভুদেবা। সাল ২০০৯, লোকচক্ষুর আড়াল থেকে প্রকাশ্যে আসে প্রভুদেব এবং নয়নতারার সম্পর্কের কথা। জানা যায় একটি তামিল ছবির শ্যুটিং চলাকালীন একে অপরের ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন প্রভু আর নয়নতারা। এমনকী তাঁরা বিয়ে করবে বলেও ঠিক করেন।

কিন্তু তাঁকে ডিভোর্স দিতে কোনওভাবেই রাজি ছিলেন না লতা। উপরন্তু তিনি আদালতে মামলা করেন যে, নয়নতারার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের কারণে পরিবারকে আর্থিক সাহায্য করেন না প্রভু। অনেক জলঘোলা হওয়ার পর প্রভুদেবকে ২০১১ সালে ডিভোর্স দেন লতা।

ওদিকে যে প্রেমিকার জন্য স্ত্রীকে ছাড়লেন, তাঁর সঙ্গেও টেকেনি সম্পর্ক। ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তাঁদের। তবে আজকাল আবার বলিউডের বাতাসে অন্য খবর শোনা যাচ্ছে। স্ত্রীকে ডিভোর্সের ৯ বছর পর ফের নাকি বিয়ে করতে চলেছেন তিনি। তবে নয়নতারা যদি না হয় তবে কে? শোনা যাচ্ছে নিজের ভাগ্নির সঙ্গে ডেট করছেন তিনি।

তাই নিয়ে নানা গসিপও চলছিল। সেই ভাগ্নিকেই নাকি বিয়ে করবেন প্রভুদেবা। যদিও এ ব্যাপারে প্রভুদেবা নিশ্চিত করে কিছু জানাননি। সবটা গুজব বলেই মনে করছেন অনেকে। তবে ভাগ্নির সঙ্গে তাঁর প্রেমটা নাকি বেশ অনেকদিন ধরেই চলছে। তবে প্রভুদেবা যে বিয়ে করছেন সে ব্যাপারে বলিউডে তাঁর ঘনিষ্টরাই কথা বলছেন। আপাতত তুমুল চর্চায় রয়েছেন বলিউডের জ্যাকশন ওরফে প্রভুদেবা।