মিয়ানমারকে ‘৩৪ বছরের পুরোনো’ সাবমেরিন দিচ্ছে ভারত

মিয়ানমারকে একটি কিলো ক্লাস সাবমেরিন দিচ্ছে ভারত। বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব নয়া দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, সমুদ্রে সহযোগিতা মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের বৈচিত্রময় ও বর্ধিত সম্পর্কের অংশ। এই প্রেক্ষাপটেই মিয়ানমার নৌবাহিনীকে কিলো ক্লাস সাবমেরিন আইএনএস সিন্ধুবীর দেবে ভারত।

১৯৮৬সালে তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে এই সাবমেরিনটি সংগ্রহ করেছিল ভারত। বর্তমানে অন্ধ্র প্রদেশের বিশাখাপত্তমের একটি শিপইয়ার্ডে এর সংস্কার কাজ চলছে।

ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শ্রীবাস্তব বলেন, এই অঞ্চলে সবার নিরাপত্তা ও সমৃদ্ধি এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর সক্ষমতা ও আত্মনির্ভরতায় আমাদের দায়বদ্ধতা থেকেই মিয়ানমারকে সাবমেরিন দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মিয়ানমারের নৌবহরে আইএনএস সিন্ধুবীরই হবে প্রথম সাবমেরিন। দ্বিতীয় কোনও দেশকে ভারতের সাবমেরিন দেয়ার ঘটনাও এটাই প্রথম।

সম্প্রতি ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নাভারনে ও পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলার মিয়ানমার সফরের পর এই সাবমেরিন দেয়ার ঘোষণা প্রকাশ্যে এলো।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্যমতে, গত ফেব্রুয়ারিতে ভারতের নৌবাহিনী প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিংহের মিয়ানমার সফরেই আইএনএস সিন্ধুবীর দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এ ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয় গত ২৫ জুন মস্কোয় ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে মিয়ানমারের সেনাপ্রধান অং হিয়ালিংয়ের বৈঠকে।

মিয়ানমারকে ভারতের সামরিক সহায়তা অবশ্য এটাই প্রথম নয়। আগেই মিয়ানমারকে ১০৫ এমএস লাইট আর্টিলারি গান, রকেট লঞ্চার, রাইফেল, বেইলি ব্রিজসহ বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম সরবরাহ করেছে ভারত। সম্প্রতি টর্পেডো সরবরাহ নিয়েও দুই দেশের মধ্যে একটি চুক্তি হয়েছে।