খুঁটিতে বেঁ’ধে জামাতার গ’লা-হা’ত-পা কে’টে টু’করো ক’রে শ্বশুর

জামাতার গ’লা-হা’ত-পা কে’টে টু’করো ক’রে শ্বশুর-ঠাকুরগাঁওয়ে জা’মাতা পশিরুলকে পৈ’শাচিক কা’য়দায়হ’ত্যার দা’য়ে শ’শুর নুরুল হককে (৬০) আ’মৃ’ত্যু ফাঁ’সিতে ঝুঁ’লিয়ে মৃ’ত্যুদ’ন্ডের আ’দেশ দি’য়েছে আ’দালত। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরে অ’তিরিক্তি জেলা ও দা’য়রা জজ বিএম

তারিকুল কবীর এই রা’য় প্র’দান করেন। সেই সাথে মা’মলার অ’পর আ’সামি শ্বাশুড়ী মাজেদা বেগম, স্ত্রী নার্গিস বেগম, শ্যালক মাজেদুল হককে যা’বজ্জীবন স্ব’শ্রম কা’রাদন্ড ও প্র’ত্যেককে ১০ হা’জার টাকা জ’রিমানা অ’নাদায়ে আ’রোও ৬ মা’সের স্ব’শ্রম কা’রাদন্ডে দ’ন্ডিত ক’রা হয়েছে। অ’পর

আ’সামি শা’পলা বেগমের বি’রুদ্ধে হ’ত্যার অ’ভিযোগ প্র’মাণিত না হ’ওয়ায় তাকে বে’কসুর খা’লাস প্র’দান করা হয়। মা’মলার বি’বরণে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া থা’নার উত্তর ফরিদপুর গ্রামের নুরুল হকের বড় মে’য়ে সাহেরা খাতুন নি’র্জন বা’ড়িতে খু’ন হ’লে ওই মা’মলায় ছোট

জা’মাতা পশিরুল ও তার পরিবারের কয়েকজনের বি’রুদ্ধে হ’ত্যা মা’মলা দা’য়ের করা হয়। সেই মা’মলায় প’শিরুল ৬ মাস হাজতে থা’কার পর আ’দালত থেকে জা’মিনে মু’ক্ত হয়ে বা’সায় যায়। এ ঘ’টনার জেরে ২০১১ সালের ১২ আগস্ট স’ন্ধ্যায় স্ত্রী না’র্গিস বেগম তার স্বামী প’শিরুল ইসলামকে (২৮)

বাড়িতে ডে’কে নিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন প’রিকল্পিতভাবে প’শিরুলকে বাড়িতে ডে’কে নিয়ে ঘ’রের খুঁ’টির স’ঙ্গে বেঁ’ধে পৈ’শাচিক কা’য়দায় গ’লা, হা’ত, পা ইত্যাদি ছু’ড়ি দি’য়ে কে’টে কে’টে হ’ত্যা ক’রে। এই ঘ’টনায় পশিরুলের বাবা লেদা মোহাম্মদ বা’দী হয়ে পর দিন দ’ন্ডিত আ’সামী নুরুল হক সহ ৬ জ’নের না’মে থা’নায় এ’কটি হ’ত্যা মা’মলা দা’য়ের ক’রে।bd24live