ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদে ভাঙ্গন, অবশেষে মুখ খুললেন ভিপি নুর

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর ও ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খানকে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করে কমিটি ঘোষণা করছে এক পক্ষ।

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে নিজেদেরকে সংগঠনের নেতাকর্মী দাবি করে ২২ সদস্যের একটি নতুন আহ্বায়ক কমিটি এ ঘোষণা দেয়। আগের ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ নামেই তারা নতুন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর গণমাধ্যমকে জানান, এ পি এম সুহেল ছাত্র অধিকার পরিষদের কেউ না। ঐখানে ছাত্র অধিকার পরিষদের কেউ নাই। এ পি এম সুহেল সে আমাদের ছাত্র অধিকার পরিষদের ছিল এক সময়।

তাকে মে মাসে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর ঐখানে যারা আছে তারা, মিয়াজি ৩৫ আন্দোলনের নেতা, জালাল ছাত্রদলের নেতা, ইমমাইল সম্রাট ঐক্যবন্ধ ছাত্র সমাজের সাধারণ সম্পাদক। ওখানে ছাত্র অধিকার পরিষদের কেউ নাই।

নুর বলেন, আমাদেরকে রাজনৈতিকভাবে কোনঠাসা করার জন্য, আমরা যেহেতু বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে গণ আন্দোলনের ডাক দিয়েছি,

মানুষকে সংগঠিত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছি সরকার আমাদের এই রাজনৈতিক অব্স্থানটাকে নষ্ট করার জন্য, আমাদের প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য, টাকা পয়সা খরচ করে তাদের কিছু অনুসারী দিয়ে এগুলো করাচ্ছে। dailyinqilab