অবশেষে নিজরে সাথে প্রকাশ হওয়া সেই নারীর ছবি নিয়ে মুখ খুললেন ক্রিকেটার নাসির

বাংলাদেশের ক্রিকেটের এক সময়ের ভরসাবান খেলোয়ার ক্রিকেটার নাসির হোসেন। যিনি দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশের ক্রিকেটে খেলেছেন। এখনও খেলে যাচ্ছেন। তবে অফ ফর্মের জন্য আছেন দলের বাইরে।খেলাতে অফ ফর্ম কিংবা অন ফর্ম যাই হোক না কেন সাধারন জীবনে নাসির সব সময়ই হয়ে থাকেন সমালোচিত। সমালোচনা যেন তার পিছন ছাড়ে না।

বৃহস্পতিবার সকালে নিজের ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের ’ফিনিসার’ খ্যাত নাসির হোসেন। ছবিতে দেখা যাচ্ছে বেশ সুদর্শন এক রমনীর পাশে দাঁড়িয়ে এক সময়ের দুর্দান্ত এই টাইগার অলরাউন্ডার। ছবিটি পোস্ট করা মাত্রই ভাইরাল হয়ে যায়, ভক্তকূলে জোর গুঞ্জনও শুরু হয়ে যায়-’তাহলে কী এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন বহুল আলোচিত নাসির হোসেন?’ না এমন কিছুই আসলে হয়নি। বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি লাল সবুজের জার্সি গায়ে এক সময়ের নিয়মিত এই মুখ। তবে খুব শিগগিরই শুভ কাজটি সেরে ফেলতে যাচ্ছেন।

নাসির হোসেনকে নিয়ে বিতর্কের শেষ কোথায় সেটা বোধ করি এদেশের ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের কেউই সুনির্দিষ্ট করে বলতে পারবেন না। আর ঠিক একারণেই তিন বছর ধরে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ত্রিসীমানায় তিনি নেই। সবশেষ বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন ’সুবাহ কান্ড’র পর। সুবাহ নামক এক রমনীর সঙ্গে তার অশালীন ফোনালাপ ফাঁস হলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের নিগুঢ় মর্ম থেকে বাদ পড়েন এক সময় ব্যাটে বলে দাপট দেখানো এই টাইগার সদস্য। তবে আশার কথা হলো, দেরিতে হলেও তার সুমতি হয়েছে। অবশেষে তিনি বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন।

১০ সেপ্টেম্বর দুপুরে আলাপকালে সুখবরটি নিজেই দিলেন নাসির হোসেন।তিনি বললেন, ’আমি আজকে সকালে ছবিটি আমার ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করার মিনিট দশেক পরে ডিলিট করে দেই। কিন্তু এর মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। ছবিটি কার না জেনে অনেকে অনেক রকমের মন্তব্য করেছে। চাইলে আপনিও করতে পারেন, নিউজও করতে পারেন যে মেয়েটিকে আমি বিয়ে করেছি। চাইলে আপনি এও বলতে পারেন যে সে আমার গার্লফ্রেন্ড। তবে আমি বলব, আমি বিয়ে করিনি। যদি আমি বিয়ে করি সবাইকে জানিয়েই করব। আর হ্যাঁ, খুব শিগগিরই আমি বিয়ে করছি। সেখানে আপনাদের সবাইকে আমন্ত্রণ করব।’

একটা সময়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য একটি বড় নাম ছিল এই নাসির হোসেন। বাংলাদেশের হয়ে তার রয়েছে অনেক অর্জন। তার হাত ধরে বাংলাদেশ জিতেছে অনেক ম্যচ। তবে বর্তমানে বাজে ফর্মের জন্য একেবারেই রয়েছেন দলের বাইরে। বেশ কয়েক বছর ধরে দলের বাইরে কাটাচ্ছেন তিনি। পাচ্ছেন না খেলার সুযোগ। তার মধ্যেও সমালোচনা তার পিছু ছাড়েনি।