যে কারণে স্বামীকে তা’লাক দিলেন নায়িকা মুনমুন

স্বামী মীর মোশাররফ রোবেনকে তালাক দিয়েছেন চিত্রনায়িকা মুনমুন। সম্প্রতি টাঙ্গাইলের সখীপুরে মসজিদের সামনে নেচে তুমুল সমালোচনায় পড়েন অভিনেত্রী মুনমুন। এরপরেই জানা গেল মুনমুনের সংসার ভা’ঙনের ঘ’টনা। তবে এই ঘ’টনা ঘটেছে কোরবানি ঈদের সময়। বিষয়টি মুনমুন নিজেই নি’শ্চিত করেছেন।

মুনমুন বলেন, ‘আমার তেমন অ’ভিযোগ নেই। দীর্ঘ ১০ বছর আমরা এ’কসঙ্গে ছিলাম, সে শুধু তার স্বা’র্থের কথাই ভেবে গেছে। সংসারের দিকে মনোযোগ ছিল না। সে সিনেমা বানাতে চাইতো আমি অ’র্থের যোগান দিতাম। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হতো না। যার কারণে আমি তাকে বলতাম সংসারের দিকে মনোযোগ দিতে। সে দিতো না।’

শা’রীরিক নি’র্যাতন করতো উল্লেখ করে মুনমুন বলেন, ‘তাকে আমি আমার নিজের একটি ফ্ল্যাট ছেড়ে দিয়েছিলাম স্টু’ডিওর জন্য। বিভিন্নভাবে টাকা পয়সা দিতাম। আমিও চাইতাম সে উঠুক, সে নায়ক হতে চাইতো। আমিও সর্বোচ্চ চে’ষ্টা করতাম, কিন্তু আমাকে শা’রীরিক নি’র্যাতন করতো এটা মেনে নিতে পারতাম না।’

রোবেন পেশায় একজন শৌখিন মডেল ও মুনমুনের সঙ্গে যাত্রা-শোসহ পার’ফর্মার হিসেবে কাজ করেন। কাজ করতে গিয়ে অ’পেক্ষাকৃত বয়সে ছোট হওয়া স’ত্ত্বেও মুনমুন তাকে বিয়ে করে সং’সারী হন।

চার বছর সে’পারেশনে ছিলেন জানিয়ে মুনমুন বলেন, ‘১০ বছরের মধ্যে চার বছর সে’পারেশনে ছিলাম। একটা সময় সে ফিল করতে পেরেছে তার এটা আমাকে জানায়। তারপর ফিরে আসে। তবে ফিরে আসার পরেও সেই আগের মতো হয়ে যায়। সেই টাকা পয়সা নেওয়া, মা’রধর করা। আর কোনো কাজ নেই তার। নিজের চি’ন্তায় অ’স্থির সে, অথচ আমাদের দুইজনের একটি স’ন্তান রয়েছে সেদিকে তার ম’নোযোগ নেই। এসব কথা বলাই যেত না তাকে।’

মুনমুন বলেন, ‘সব মিলিয়ে দেখলাম রোবেনের সঙ্গে আর একস’ঙ্গে থাকা সম্ভব না। আসলে শা’রীরিক নি’র্যাতনের মাত্রা বেড়েই যাচ্ছিল। যার কারণে আমি তাকে ডি’ভোর্সের সি’দ্ধান্ত নেই এবং কোরবানি ঈদের একদিন পরে সেটা কা’র্যকর হয়।’

মুনমুন বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। প্রায় ৮৫টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। সরকার অ’শ্লীলতার বিপক্ষে প’দক্ষেপ গ্রহণ করলে ২০০৩ সালের পর তার চলচ্চিত্রে উ’পস্থিতি কমে যায়। সর্বশেষ ২০১৭ সালে মিজানুর রহমান মিজান পরিচালিত রা’গী চলচ্চিত্রে খ’লচরিত্রে অ’ভিনয় করেন তিনি।

মুনমুন ১৯৯৭ সালে বিখ্যাত পরিচালক এহ’তেশামের মাধ্যমে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পে প্রবেশ করেন। তিনি এহতেসামের সহকারী হিসেবে কাজ করতে এসেছিলেন, কিন্তু তিনি তার অভিনয়ের দ’ক্ষতা দেখে নায়িকা হওয়ার প্র’স্তাব দেন। এহতেসাম পরিচালিত মৌমাছি চলচ্চিত্রে অভি’নয়ের মাধ্যমে অ’ভিষেক হয় তার।

মুনমুন ২০০৩ সালে সিলেটের একজন ব্যবসায়ীর সঙ্গে পরি’ণয়সূত্রে আ’বদ্ধ হলে, যুক্তরাজ্যে চলে যান। ২০০৬ সালে তাদের বিবাহ বি’চ্ছেদ ঘটে। পরে, ২০১০ সালে তিনি দ্বি’তীয় বিয়ে করেন। এই দম্পতির দুই পুত্র স’ন্তান রয়েছে।