সী’মান্তে উ’ত্তেজনা কমাতে যে ৫ বিষয়ে একমত ভারত ও চীন

হি’মালয় সী’মান্তে উ’ত্তেজনা কমাতে নতুন করে সমঝোতায় পৌঁছেছে চীন ও ভারত। গতকাল শুক্রবার বা’র্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ম’স্কোতে কূ’টনৈতিক প’র্যায়ের এক বৈঠকের পর সী’মান্তে ‘শা’ন্তি ও স্থি’তিশীলতা’ ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে একমত হয়েছে দুই দেশ।

দুই দেশের এক যৌ’থ বি’বৃতিতে বলা হয়েছে, দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাঁ’চটি বিষয়ে একমত হয়েছেন। এগুলোর মধ্যে আছে সী’মান্তে স’ম্মুখসারির সেনা ব্যব’স্থাপনার ক্ষেত্রে সব চু’ক্তি ও প্রো’টোকল মেনে চলা, শা’ন্তি ও স্থি’তিশী’লতা বজায় রাখতে কাজ করা এবং উ’ত্তেজনা তৈরি করে তুলতে পারে এমন সব কা’র্যকলাপ থেকে বিরত থাকা।

ওই বি’বৃতিতে আরও বলা হয়েছে, দুই দেশের বর্তমান সী’মান্ত পরি’স্থিতি কোনও দেশেরই কাম্য না। উভয় প’ক্ষের উচিত সেনাদের দ্রুত নি’ষ্ক্রিয় করে সী’মান্তে উ’ত্তেজনা কমানো।

বি’বৃতিতে জানানো হয়, দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী একমত হয়েছেন যে সী’মান্ত এলাকার বর্তমান পরি’স্থিতি কোনো প’ক্ষের জন্যই লা’ভজনক নয়।

তাই, চীন ও ভারত উভ’য়েরই সামরিক পর্যায়ে বৈঠকের ভি’ত্তিতে যত তাড়াতাড়ি স’ম্ভব প্রকৃত নি’য়ন্ত্রণরেখা থেকে মোতায়েন করা অ’তিরিক্ত সেনা সরিয়ে নেওয়ার প্র’ক্রিয়া দ্রুত বা’স্তবায়িত করার চে’ষ্টা করা হবে। সেই সঙ্গে দুই পক্ষের সেনা ঘাঁ’টির মধ্যে ব্যবধান বাড়িয়ে উ’ত্তেজনা ক’মানোর সি’দ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, রাশিয়ার রাজধানী ম’স্কোতে সাংহাই কোঅ’পারেশন অ’র্গানাইজেশনের পর’রাষ্ট্রমন্ত্রীদের স’ম্মেলনে আ’লাদাভাবে একটি বৈঠকে বসেন চীনা প’ররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই ও ভারতীয় প’ররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শ’ঙ্কর।

শুক্রবার চীনের পররাষ্ট্র ম’ন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, ওয়াং ওই বৈঠকে ‘অবিলম্বে গু’লি চা’লানো ও দু’প’ক্ষের প্র’তিশ্রু’তি ল’ঙ্ঘন হয় এমন বি’পজ্জনক ক’র্মকাণ্ড ব’ন্ধ করে উ’স্কানিমূলক কাজ থামানো জরুরি’ বলে জয়শ’ঙ্করকে জানিয়েছেন।

জ’য়শঙ্করকে তিনি আরও বলেন, সী’মান্তে মোতায়েন করা অ’তিরিক্ত সেনা ও স’রঞ্জামাদি সরানো উচিত। রয়টার্স জানায়, ও’য়াংয়ের এমন ম’ন্তব্যের সঙ্গে চীনা সামরিক বাহিনীর সা’ম্প্রতিক ক’র্মকাণ্ডের মিল নেই।

বুধবার, চীনের ক্ষ’মতাসীন কমি’উনিস্ট পা’র্টির প’ত্রিকা গ্লোবাল টাইমস এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ) সী’মান্তে সেনা, বো’মারু ও সাঁ’জোয়া যান পা’ঠিয়েছে।

চীনা রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমও স’ম্প্রতি তিব্বতে পিএলএর প্যা’রাট্রুপারদের স’শস্ত্র জা’ম্প ড্রি’লের খবর প্রকাশ করে। বৃহস্পতিবার রাতে প্র’কাশিত এক স’ম্পাদকীয়তে গ্লো’বাল টাইমস জানায়, ভারতের সঙ্গে যে কোনো আলোচনায় ‘যু’দ্ধ প্র’স্তুতি’ নিয়ে কথা বলা উচিত।

সংবাদপত্রটি জানিয়েছে, ‘কূ’টনৈতিক বৈঠক ব্য’র্থ হলে চীনকে অ’বশ্যই সামরিক পদ’ক্ষেপ নিতে স’ম্পূর্ণ প্র’স্তুত থাকতে হবে। চীনের স’ম্মুখভাগের সেনারা যাতে জরুরি প’রিস্থিতিতে প্র’তিক্রিয়া জানাতে স’ক্ষম হয় এবং যে কোনও সময় যু’দ্ধের জন্য প্র’স্তুত থাকে সেই বিষয়ে গু’রুত্ব দেওয়া উ’চিত।’

গ্লোবাল টাইমস আরও জানায়, ‘চীনের মুখোমুখি হওয়ার বিষয়ে ভারতের অ’স্বাভাবিক আ’ত্মবি’শ্বাস আছে। ভারতের য’থেষ্ট শ’ক্তি নেই। ভারত যদি চরম জা’তীয়তাবাদী শ’ক্তি থেকে তার র‌্যা’ডিক্যাল চীনা নীতি অ’নুসরণ করে চলে, তবে সেটির জন্য চরম মূ’ল্য দিতে হবে।’

চলতি সপ্তাহের শুরুতে পশ্চিম হিমালয়ের সী’মান্তবর্তী অ’ঞ্চলে ভারত ও চীনের ম’ধ্যকার সং’ঘর্ষে ৪৫ বছর পর প্রথমবারের মতো গু’লি চালানো হয়। চীন ও ভারত পা’ল্টাপাল্টি বি’বৃতিতে একে অন্যকে শূন্যে গু’লি চালানোর জন্য অ’ভিযুক্ত করে।

এরপরই দুই দেশ তাদের সামরিক অ’বস্থান আরও মজবুত করতে মনো’যোগী হয়। দুই দেশই প্যা’ঙগং লেক এলাকায় অতি’রিক্ত সেনা ও ট্যা’ঙ্ক-সহ সামরিক সর’ঞ্জাম মো’তায়েন করেছে।