টিকটকে আ’পত্তিকর ভিডিও, কড়া শা’স্তির মুখে ৫ মুসলিম নারী,২ বছরের জেল

টিকটকে আ’পত্তিকর ভিডিও পোস্ট করে কড়া শা’স্তির মুখে পড়লেন ৫ নারী। মিশরের ওই নারীদের ২ বছরের জে’লের সা’জা শুনিয়েছে আদালত। জানা গেছে, সমাজের নৈতিকতা ল’ঙ্ঘ’নের অ’ভিযো’গে তাদেরকে এই শা’স্তি দিয়েছেন বিচারপতি।

সূত্রের খবর, হানিন হোসাম, মওদা আল-আধমসহ আরও তিন নারী ভিডিও শেয়ারিং অ্যাপ টিকটকে কিছু ভিডিও পোস্ট করেন। সেই ভিডিও-র ভিত্তিতেই ওই ৫ জনের বি’রু’দ্ধে ২ বছরের কা’রাদ’ণ্ডের শা’স্তি শোনানো হয়েছে। অবশ্য ৩ লক্ষ মিশরীয় পাউন্ড দিয়ে প্রত্যেকে এই রায়ের বি’রু’দ্ধে আপিল করতে পারে বলে জানিয়েছে সূ’ত্র।

বিচারক সম্প্রতি রায় দিলেও মামলা চলছিল বেশ কয়েক মাস ধরে। এপ্রিল মাসে হানিন হোসামকে গ্রে’ফতার করা হয়। টিকটক অ্যাকাউন্টে ১.৩ মিলিয়ন ফলোয়ারকে ৩ মিনিটের একটি ভিডিও পোস্ট করে সে জানিয়েছিল, তার অনুগামীরাও তার সঙ্গে কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারে।

মে মাসে গ্রে’ফতার হয় আল-আধম। ব্য’ঙ্গা’ত্মক ভিডিও পোস্ট করার জন্য তাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছিল। টিকটকে তার ফলোয়ার রয়েছে প্রায় ২ মিলিয়ন। এই গ্রেফতারিতে মিশরে মানুষের সামাজিক স্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কেউ কেউ বলছেন যেহেতু ওই নারীরা নিম্নবিত্ত পরিবার থেকে উঠে এসেছে তাই তাদের সঙ্গে চ’ক্রা’ন্ত করে এ ঘ’টনা ঘ’টানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, এসব ব্যাপারে মিশরে নিয়ম কানুন অত্যন্ত ক’ড়া। জাতীয় সুর’ক্ষার জন্য হু’মকিস্বরূপ বলে চি’হ্নিত করে সেগুলিকে ব্ল’ক করা ও ৫ হাজারের ফলোয়ার থাকলে সেই অ্যাকাউন্ট পর্যবেক্ষণ করার অনুমতি সহ ইন্টারনেটে নিয়’ন্ত্রণের ব্যা’পারে একাধিক আইন রয়েছে। সূত্র : আলজাজিরা।