বিদেশ ফেরত যাত্রীদের হয়রানি বন্ধ করার আহ্বান

বিদেশ ফেরত যাত্রীদের হয়রানি বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার ১৬ মার্চ প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের ব্যাপক বিস্তৃতিতে বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা দেশে প্রত্যাবর্তন করছেন।

দেশে আসার সময় তাদেরকে স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ আনুসাঙ্গিক আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার পর তাদেরকে প্রত্যাবর্তনের সুযোগ দেয়া হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষার একটি কার্ডও তাদেরকে প্রদান করা হয়। যেখানে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তার রিপোর্ট উল্লেখ থাকে। এরপরে যখন তারা দেশে প্রত্যাবর্তন করেন, তখন বাংলাদেশের বিমান বন্দরে স্বাস্থ্য পরীক্ষার নামে তাদেরকে যে হয়রানি করা হচ্ছে তা দুঃখজনক।

প্রবাসীরা আমাদের রেমিটেন্স যোদ্ধা। বাংলাদেশের অগ্রগতিতে তাদের অনেক অবদান রয়েছে। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও কষ্টের বিনিময়ে বাংলাদেশ প্রবৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। করোনা ভাইরাসের উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বিমান বন্দরে বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের সাথে কোয়ারেন্টিনের নামে যে অসৌজন্যমূলক আচরণ করা হচ্ছে তা কারো কাম্য নয়।

স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা সুরক্ষার স্বার্থে যদি কাউকে কোয়ারেন্টিনে রাখতে হয় তাহলে তাদের জন্য পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধাসহ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন বাসস্থানের ব্যবস্থা থাকা দরকার। যাতে তাদের কোনো সমস্যা না হয়। সর্বোপরি তাদের সাথে মর্যাদাপূর্ণ ও সৌজন্যমূলক আচরণ করা দরকার।

বিদেশ ফেরত যাত্রীদের হয়রানি বন্ধ এবং যথাযথ প্রক্রিয়ায় স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে তাদের পরিবার-পরিজনের নিকট ফিরে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়ার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”