ইউক্রেন সীমান্তে ৪০ হাজার সেনা মোতায়েন করছে ন্যাটো

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পরিপ্রেক্ষিতে পূর্ব ইউরোপে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা শক্তিশালী করার বিষয়ে একমত হয়েছেন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর নেতারা।

ব্রাসেলসে বৈঠকের পর এক যৌথ বিবৃতিতে ন্যাটো নেতারা এ তথ্য জানান বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা ন্যাটোর প্রতিরক্ষা পরিকল্পনা সক্রিয় করেছি, ন্যাটো রেসপন্স ফোর্স মোতায়েন করেছি এবং ৪০ হাজার সেনাকে পূর্ব প্রান্তে সরিয়ে নিচ্ছি।’

বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে ন্যাটো মহাসচিব জেনস স্টলটেনবার্গ সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

ন্যাটো মহাসচিব বলেন, ‘ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ প্রজন্মের সবচেয়ে বড় নিরাপত্তা সংকট। আমরা আমাদের জোটকে শক্তিশালী রাখতে এবং আমাদের জনগণকে নিরাপদ রাখতে ঐক্যবদ্ধ আছি।’

জেনস স্টলটেনবার্গ আরও বলেন, বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, স্লোভাকিয়া, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া ও রোমানিয়াতে চারটি নতুন দল পাঠানো হবে। এ ছাড়া, সাইবার প্রতিরক্ষা জোরদার করা হচ্ছে এবং ন্যাটো ইউক্রেনকে ‘জৈবিক, রাসায়নিক, রেডিওলজিক্যাল ও পারমাণবিক হুমকি’ থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করবে।

‘রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার সংঘাতের প্রকৃতি সম্পূর্ণভাবে পাল্টে দেবে। এটি আন্তর্জাতিক আইনের স্পষ্ট লঙ্ঘন হবে এবং এর পরিণতি হবে ব্যাপক,’ যোগ করেন স্টলটেনবার্গ।

ইউক্রেনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের আক্রমণ দীর্ঘমেয়াদে নিরাপত্তা পরিবেশকে বদলে দিয়েছে এবং ন্যাটো একটি ‘দীর্ঘ যাত্রার’ জন্য প্রস্তুত বলে উল্লেখ করেন তিনি।

পূর্ব পশ্চিম