একের পর এক দুঃসংবাদ সাকিবের > বায়োবাবল ভেঙে বিজ্ঞাপনের শুটিং করে শাস্তির মূখে

সাকিব আল হাসান সময়টা মোটেও ভাল যাচ্ছে না তাঁর , আইপিএলে দল পায় নি , বিপিএলে ফাইনালে ১ রানে হারের কষ্ট ,এবার যোগ হচ্ছে শাস্তি , অর্থাৎ একে একে তিনটি দুঃসংবাদ। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সদ্য শেষ হওয়া অষ্টম আসরে নিয়ম ভেঙে বিতর্কের জন্ম দেন সাকিব আল হাসান। ফাইনালের আগের দিকে ট্রফি উন্মোচন ও ফটোসেশনে উপস্থিত না হয়ে বিজ্ঞাপনের শুটিংয়ে অংশ নেন সাকিব। নিয়ম না মেনে বায়োবাবল ভেঙে বিজ্ঞাপনের শুটিং করেন সাকিব।

যেখানে ফ্রাঞ্চাইজির পক্ষ থেকে বলা হয়, পেটের পীড়ার কারণে ফটোসেশনে উপস্থিত থাকতে পারেননি সাকিব। তবে এরপরই ফাঁস হয়ে যায় ফটোসেশনে সাকিবের না থাকার কারণ। এ ঘটনায় ফরচুন বরিশাল ফ্রাঞ্চাইজিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

নোটিশের একদিন পরই এ ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করে বরিশাল ফ্রাঞ্চাইজি। এখন দেখার পালা শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে সাকিবকে কোনো শাস্তি দেওয়া হয় কিনা। সাকিবকে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না ও টুর্নামেন্ট শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

তিনি বলেছিলেন, টুর্নামেন্টের মাঝে তো কিছু করা সম্ভব না। টুর্নামেন্ট শেষ হয়েছে, এখন যা করার করব নিশ্চিত। ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দায়িত্বটা এখানে বেশি ছিল। সাকিব কীভাবে জৈব সুরক্ষা বলয় ভাঙল! আমরা ফ্র্যাঞ্চাইজিদের নির্দেশনা দিয়েছিলাম, কীভাবে জৈব সুরক্ষা বলয় মানতে হবে। এটা ভাঙা হয়েছে, এ কারণেই কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়া হয়েছে তাদের।

তিনি আরও বলেছিলেন, সাকিবের এমন ঘটনার দায়টা ফ্র্যাঞ্চাইজিরই বেশি, আমি আপনাদের বলি, এর আগে যতগুলো সিরিজ বা টুর্নামেন্ট হয়েছে, আমরা কিন্তু ছাড় দিইনি। এবার কিন্তু ফ্র্যাঞ্চাইজিদের ওপর দায়িত্ব ছিল। বিসিবির অধীনে এমন হয়নি। বিসিবি দায়ী নয়।